শনিবার ২৯, জানুয়ারী ২০২২
EN

অনলাইনে কেনাকাটা, বদলে দিচ্ছে শপিং স্টাইল

ঈদকে সামনে রেখ অনলাইনে কেনাকাটা জমে উঠেছে। প্রতিদিনই বাড়ছে অনলাইন ক্রেতার সংখ্যা। ফেসবুকের পাতা আর নিজস্ব ওয়েবসাইটজুড়ে সাজানো বাহারি পোশাক, দৃষ্টিনন্দন গহনা, আর ব্যাগ-কসমেটিকস জানান দেয় আমরা আছি ঈদ স্পেশাল নিয়ে। মার্কেটে যাওয়ার ঝুঁকিও ঝামেলা দুটোই এড়িয়ে শপিং করাই হল অনলাইন শপিং।

ঈদকে সামনে রেখ অনলাইনে কেনাকাটা জমে উঠেছে। প্রতিদিনই বাড়ছে অনলাইন ক্রেতার সংখ্যা।

ফেসবুকের পাতা আর নিজস্ব ওয়েবসাইটজুড়ে সাজানো বাহারি পোশাক, দৃষ্টিনন্দন গহনা, আর ব্যাগ-কসমেটিকস জানান দেয় আমরা আছি ঈদ স্পেশাল নিয়ে। মার্কেটে যাওয়ার ঝুঁকিও ঝামেলা দুটোই এড়িয়ে শপিং করাই হল অনলাইন শপিং।

নগরজীবনে ঘরে বসেই কেনাকাটার উপায় করে দিয়েছে অনলাইন শপিংসাইটগুলো। যানজট ঠেলে বাজারে না গেলেও চলবে। শুধু আপনার হাতে একটা স্মার্টফোন থাকলেই চলবে।

এখানে একটি টাচই আপনার সামনে হাজির করবে পণ্যের বিশাল সম্ভার। পছন্দের পণ্য নির্বাচন করে অর্ডার করলেই ঘরে বসে পেতে পারেন।

অনলাইন বেচাকেনার ক্ষেত্রে দুই ধরনের ওয়েবসাইট আছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে দেশের নামী দামী প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ওয়েবসাইট। অন্যটি হল শুধুই অনলাইন ভিত্তিক কেনাবেচার ওয়েবসাইট।

ক্রেতারা বলছেন খরচ ও সময় সাশ্রয় এবং ঝামেলা এড়াতে অনলাইনে কেনাকাটা একটি বড় সুযোগ। এই সুযোগে কাছের মানুষকে উপহার দেয়ার বড় সুবিধা পাওয়া যায় বলে জানান ধানমন্ডিতে থাকা জিনাত রহমান।

দেশে দুই ধরনের অনলাইন সেবা চালু আছে। এক ধরনের সেবা পেতে আপনাকে পণ্য পছন্দ করে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে আগে মূল্য দিতে হবে। পরে হাতে পাবেন পণ্যটি।

অন্য প্রকার সেবা আপনাকে পণ্য পৌঁছে দিয়ে মূল্য নিয়ে যাবে। পণ্যভেদে কিছু পরিবহন খরচও আপনার কাছ থেকে নেবেন অনলাইন বিক্রেতারা। তবে পণ্যের দাম যত বেশি পরিবহন খরচও তত কম।

অনলাইনে যেমন দেশের মধ্যে আপনি পন্য কিনতে পারবেন তেমনি বিদেশেও পছন্দের পণ্য পাঠাতে পারবেন। ব্যাগ, ঘড়ি, জুয়েলারি যদি বন্ধুকে দিতে চান তাহলেও অনলাইনে তা পৌছে দেয়ার সুযোগ আছে।

অনলাইন বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ঈদ উপলক্ষে তাদের ঈদের পোশাক, জুয়েলারি, জুতা, ব্যাগ, কসমেটিকস প্রভৃতি পণ্যের বিক্রি কয়েকগুণ বেড়েছে।

সৌখিন ফ্যাশনের কর্মকর্তা বিলকিস ইরানী জানান, আগে রোজা এলেই অনেকে চিন্তিত থাকতেন ভিড় ঠেলে, কাদামাটি পেরিয়ে মার্কেটে কেনাকাটা করতে যাওয়ার । রোজা রেখে গরমে অস্থির হয়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়তেন। অনেকে কষ্টের ভয়ে মার্কেটে গিয়ে কেনাকাটা করতে যেতে চান না।

কিন্তু ঈদের কেনাকাটা তো করা চাই। তাই ক্রেতাদের চাহিদা ও কষ্টের কথা মাথায় রেখে তাদের ঈদের কেনাকাটা আরো সহজ করে দিতে কয়েকটি ফ্যাশন হাউসের মতো শৌখিন ফ্যাশনও অনলাইন ভিত্তিক পোশাক কেনাকাটায় ক্রেতাদের সেবা দিচ্ছে।

ইন্ডিয়ান আনস্টিচ বা সেলাই বিহীন ফ্লোরটাচ আনারকলি, পার্টি ড্রেস, পাখি ড্রেস, ব্রাসোর থ্রি-পিস, সুতি থ্রি-পিস, পাকিস্তানী লন এর রেপ্লিকা ও অরিজিনাল থ্রি-পিস এখানে পাওয়া যায়।

ফ্লোরটাচ অনারকলির দাম পড়বে সাত হাজার থেকে ১৫ হাজার পর্যন্ত, ট্রেডিশনাল আনারকলি ছয় হাজার থেকে নয় হাজার, পার্টি ড্রেস ও পাখি ড্রেস সাত হাজার থেকে এগার হাজার, ব্রাসোর থ্রি-পিস চার হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা, জর্জেট প্রিন্ট ফ্রক তিন হাজার সাতশ থেকে পাঁচ হাজার টাকা, ইন্ডিয়ান সুতি এম্ব্রয়ডারড ও ইয়ক থ্রি-পিস তিন হাজার আটশ থেকে পাঁচ হাজার টাকা।

স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই চাকরি করেন বা যারা বাজারের ভীড় ঠেলে আর দরদাম করে চাল, ডাল, তেল, সবজি কেনার ঝামেলা এড়াতে চান তারাও এখন ঘরে বসেই পেতে পারেন প্রতিদিনকার অপরিহার্য বাজার-সদাই।

আর এর জন্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে chaldal.com মাউসের ক্লিকেই কেনা যাবে চাল, ডাল বা সবজি। গ্রোসারি, স্টেশনারি এবং বেবি প্রোডাক্ট সবই।

৪০০ টাকার নিচে অর্ডার করলে তারা ডেলিভারি চার্জ করেন ৪০ টাকা। তবে অর্ডারের পরিমাণ বেশি হলে গ্রাহক সার্ভিস চার্জ ছাড়াই ঘরে বসে পেয়ে যাবেন তার সামগ্রী। আর ‘ক্যাশ অন ডেলিভারি’র সুবিধা তো আছেই।

আরও অনেক সাইটের মধ্য থেকেও আপনি আপনার পছন্দের পণ্যটি সংগ্রহ করতে পারেন meenabazar.com.bd, aponzone.com, kudoro.com, wristbands-house.com, AmarGadget.com, feriola.com, banglashoppers.com, akhoni.com, goponjinish.com, biponee.com, priyoshop.com, dam.com.bd, bdebazaar.com, ajkerdeal.com facebook.com/ButterflybyShagufta, facebook.com/pages/Violaby ইত্যাদি সাইট গুলোতে।

এমএ/এসএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *