শনিবার ৪, ডিসেম্বর ২০২১
EN

অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হবে না

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানিয়েছেন, এখন থেকে মোবাইল ফোন সেট চালু করলে স্বয়ংক্রিভাবে তার নিবন্ধন হবে। তবে ফোনটি অবৈধ হলেও বন্ধ হবে না। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাতে মোস্তাফা জব্বার বলেন, “আমরা চাই না মোবাইল ফোনের নিবন্ধন করতে গিয়ে জনগণের কোনও ভোগান্তি হোক। এজন্যই মোবাইল ফোন সেটের নিবন্ধন স্বয়ংক্রিয়ভাবে করা হবে।”

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানিয়েছেন, এখন থেকে মোবাইল ফোন সেট চালু করলে স্বয়ংক্রিভাবে তার নিবন্ধন হবে। তবে ফোনটি অবৈধ হলেও বন্ধ হবে না।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাতে মোস্তাফা জব্বার বলেন, “আমরা চাই না মোবাইল ফোনের নিবন্ধন করতে গিয়ে জনগণের কোনও ভোগান্তি হোক। এজন্যই মোবাইল ফোন সেটের নিবন্ধন স্বয়ংক্রিয়ভাবে করা হবে।”

“আমরা দেখেছি, মোবাইল ফোন সেটের নিবন্ধন করতে গিয়ে গ্রামের সাধারণ মানুষ বিশেষ করে যিনি ফিচার ফোন ব্যবহার করেন, তিনিই বেশি ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। প্রবাসীরাও ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।”

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা (সজীব ওয়াজেদ জয়) আমাদের বলেছেন, জনগণের ভোগান্তির কারণ হয়, এমন কোনও কাজ আমরা করবো না। মন্ত্রী উল্লেখ করেন, এনইআইআর (ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্ট্রার)সিস্টেম চালু করা হয় মোবাইলের আইএমইআই ডাটাবেজ তৈরি করতে। এনইআইআর সিস্টেমের মাধ্যমে তা সফলভাবে করা যাচ্ছে।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, “অবৈধ ফোন ধরা আমাদের কাজ নয়। এটি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাজ। আমরা আইএমআই ডাটাবেজ তৈরি করে দেবো। প্রয়োজনে এনবিআরকে ডাটাবেজেরে একসেসও দিয়ে দেওয়া হবে। এনবিআর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবে কোন ফোন অবৈধ। তারা কাগজপত্র চাইলে সেগুলো তাদের সরবরাহ করা হবে।”

যেসব মোবাইল ফোন অবৈধ চিহ্নিত হয়েছে সেগুলোর কী হবে, প্রশ্নের জবাবে মোস্তাফা জব্বার বলেন, “সব ফোনের নিবন্ধন হয়ে যাবে। যদি কোনও ফোন বন্ধ হয়ে যায় সেগুলো চালু হয়ে যাবে।”

উল্লেখ্য, গত ৩০ সেপ্টেম্বর বিটিআরসি জানায়, ০১ অক্টোবর থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে। একই সঙ্গে এখন থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল উৎপাদন বা আমদানি বা ক্রয়/বিক্রয় করলে টেলিযোগাযোগ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এমবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *