শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

অস্ট্রেলিয়াকে ১২৫ রানেই গুটিয়ে দিলো ইংল্যান্ড

চলতি বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষকে রীতিমত নাকানি চুবানি খাইয়ে ছাড়ছে হট ফেবারিট ইংল্যান্ড। এবার তাদের সামনে পড়ে অসহায় দেখালো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপকেও।

চলতি বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষকে রীতিমত নাকানি চুবানি খাইয়ে ছাড়ছে হট ফেবারিট ইংল্যান্ড। এবার তাদের সামনে পড়ে অসহায় দেখালো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপকেও।

দুবাইয়ে ইংলিশ বোলারদের তোপে ১২৫ রানেই গুটিয়ে গেছে অসিদের ইনিংস। যদিও পুরো ২০ ওভারই খেলেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই চোখে সর্ষে ফুল দেখতে থাকে অসিরা। স্কোরবোর্ডে ১৫ রান তুলতেই হারিয়ে বসে ৩ উইকেট।

আদিল রশিদের স্পিন দিয়ে বোলিং আক্রমণ শুরু করে ইংল্যান্ড। প্রথম ওভারে ৬ রান তুলতে পারে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু দ্বিতীয় ওভারেই খায় ধাক্কা।

ক্রিস ওকসের দারুণ এক ডেলিভারি ডেভিড ওয়ার্নারের (১) ব্যাট ছুঁয়ে চলে যায় উইকেটরক্ষকের হাতে। পরের ওভারে সাজঘরে স্টিভেন স্মিথও। ক্রিস জর্ডানকে পুল করতে গিয়ে মিডঅনে ওকসের ক্যাচ হন অসি ব্যাটিং স্তম্ভ (১)।

তার পরের ওভারে অস্ট্রেলিয়ার দুঃখ আরও বাড়ে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের এলবিডব্লিউয়ে। ওকসের শিকার হওয়া এই হার্ডহিটার ব্যাটার ৯ বলে করেন মাত্র ৬।

পঞ্চম আর ষষ্ঠ ওভার মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়া মাত্র ৬ রান তুলতে পারে, যদিও কোনো উইকেট হারায়নি। তবে পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার পরই আবার ধাক্কা অসিদের।

সপ্তম ওভারের প্রথম বলে আদিল রশিদের ঘূর্ণিতে এলবিডব্লিউ মার্কাস স্টয়নিস (০)। ২১ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া।

পঞ্চম উইকেটে ম্যাথু ওয়েডকে নিয়ে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েছিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। তবে ৩০ রানের বেশি যেতে পারেনি এই জুটিও। ১৮ বলে ১৮ করে লিভিংস্টোনের শিকার হন ওয়েড।

শেষদিকে এসে অ্যাশটন অ্যাগার আর ফিঞ্চ মিলে ৩৫ বলে ৪৭ রানের একটি জুটিতে অস্ট্রেলিয়াকে একশ রানের দোরগোড়ায় নিয়ে আসেন। ২০ বলে ২০ করেন অ্যাগার।

টেস্ট মেজাজে খেলে একটা প্রান্ত ধরে ছিলেন অসি অধিনায়ক ফিঞ্চ। ১৯তম ওভারের প্রথম দুই বলে ফিঞ্চ (৪৯ বলে ৪৪) আর দুই ছক্কায় ইনিংস শুরু করা প্যাট কামিন্সকে (৩ বলে ১২) সাজঘরের পথ দেখান ক্রিস জর্ডান।

শেষদিকে মিচেল স্টার্কের ৬ বলে ১৩ রানের ইনিংসে মোটামুুটি লড়াই করার মতো একটা পুঁজি পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

ইংলিশ বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল ক্রিস জর্ডান, ১৭ রানে নিয়েছেন ৩টি উইকেট। ২টি করে শিকার ক্রিস ওকস আর টাইমল মিলসের।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *