শুক্রবার ২১, জানুয়ারী ২০২২
EN

অস্ট্রেলিয়া ও মেক্সিকোতেও বাড়ছে করোনা

অস্ট্রেলিয়া ও মেক্সিকোতেও বাড়ছে কোভিড-১৯ রোগী। অস্ট্রেলিয়ায় নভেল করোনাভাইরাসে শেষ ২৪ ঘণ্টায় এক লাখ ২২ হাজার ৬৮৫ জন নতুন করে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ২৪ হাজার ৭২৭। যদিও মোট আক্রান্তের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্র প্রথম এবং বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত দ্বিতীয়তে অবস্থান করছে।

অস্ট্রেলিয়া ও মেক্সিকোতেও বাড়ছে কোভিড-১৯ রোগী। অস্ট্রেলিয়ায় নভেল করোনাভাইরাসে শেষ ২৪ ঘণ্টায় এক লাখ ২২ হাজার ৬৮৫ জন নতুন করে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ২৪ হাজার ৭২৭। যদিও মোট আক্রান্তের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্র প্রথম এবং বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত দ্বিতীয়তে অবস্থান করছে।

আজ শুক্রবার সকালে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস শনাক্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারস থেকে এ তথ্য জানা যায়।

ওয়েবসাইটটির তথ্য অনুযায়ী, অস্ট্রেলিয়ায় লক্ষাধিক কোভিড-১৯ শনাক্তের পাশাপাশি ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে সুস্থতার খবর জানা যায়নি। তবে, এখনও সেখানে করোনার সঙ্গে লড়ে যাচ্ছে ১০ লাখ ৯৪ হাজর ৮৯৭ অস্ট্রেলিয়ান। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছে ৩৬৭ জন। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা দুই হাজার ৫৭২। আর, সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছে চার লাখ ২৭ হাজার ২৫৮ জন।

অন্যদিকে, মেক্সিকোতে ৪৩ হাজার ৫২৩ জন নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর সংখ্যা ১৪৮। এ সময়ে সুস্থ হয়েছে ১০ হাজার ১৭৩ জন। এখন পর্যন্ত করোনার সঙ্গে লড়ে যাচ্ছে মোট পাঁচ লাখ ৭৩ হাজার ২৯৮ জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক চার হাজার ৭৯৮ জন। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট মৃত্যুর সংখ্যা এক লাখ তিন লাখ ৯১২। আর, সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছে ৩৩ লাখ ৮৩ হাজার ৫৬৬জন।

এশিয়ার দেশ থাইল্যান্ডে আট হাজার ১৫৮ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা অন্যান্য দেশের তুলনায় কম। এখন পর্যন্ত দেশটিতে ২১ হাজার ৯০১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে নতুন মৃত্যু ১৫টি। এ ছাড়া গতকাল সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে তিন হাজার ৯৪২ জন। যদিও দেশটিতে এখনও ৭৪ হাজার ৭৯২ জন রোগী করোনার সঙ্গে লড়াই করছেন। এর মধ্যে ৫৮৮ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *