শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

আফগান সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া বেতন দিচ্ছে তালেবান

অবশেষে সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া বেতন দেওয়া শুরু করেছে তালেবান সরকার। আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখল করার পর থেকেই দেখা দেয় চরম বিশৃঙ্খলা। বন্ধ থাকে ব্যাংকিং কার্যক্রম। বিশেষ করে বৈশ্বিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো আফগানিস্তানের অর্থ জব্দ ও সহায়তা বন্ধ করে দেওয়ার পর দেখা দেয় তীব্র অর্থনৈতিক সংকট। এতে আটকে যায় সরকারি কর্মচারীদের বেতন-ভাতাও। তবে দীর্ঘদিন পর সরকারি কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার খবর এল তালেবান সরকারের কাছ থেকে।

অবশেষে সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া বেতন দেওয়া শুরু করেছে তালেবান সরকার। আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখল করার পর থেকেই দেখা দেয় চরম বিশৃঙ্খলা। বন্ধ থাকে ব্যাংকিং কার্যক্রম। বিশেষ করে বৈশ্বিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো আফগানিস্তানের অর্থ জব্দ ও সহায়তা বন্ধ করে দেওয়ার পর দেখা দেয় তীব্র অর্থনৈতিক সংকট। এতে আটকে যায় সরকারি কর্মচারীদের বেতন-ভাতাও। তবে দীর্ঘদিন পর সরকারি কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার খবর এল তালেবান সরকারের কাছ থেকে।

রোববার (২১ নভেম্বর) পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যম ডনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, দেশটিতে বেশিরভাগ সরকারি কর্মচারী এখনো কাজে ফিরতে পারেনি। তাছাড়া তালেবানর ক্ষমতা দখল করার আগে থেকেই অনেককে কয়েক মাস ধরে বেতন দেওয়া হয়নি।

আফগানিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমদ ওয়ালী হকমল এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আজকে থেকে আমরা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন দেওয়া শুরু করতে যাচ্ছি। আমরা তিন মাসের বেতন পরিশোধ করবো।

তিনি বলে, ২৩ আগস্ট থেকে হিসাব করে বেতন দেওয়া হবে। তবে কিছু কর্মচারীকে তালেবান ক্ষমতা নেওয়ার আগের এক মাসের বকেয়াও পরিশোধ করা হবে। দেশের বিদ্যমান ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে এ বেতন পরিশোধ করা হবে। তবে যথাযথভাবে এ কার্যক্রম পরিচালোনা করতে একটু সময়ের প্রয়োজন হবে।

২০ বছরের যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে ৩১ আগস্টের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্ররা আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেয়। তবে টানা কয়েক মাস ধরে চরম অস্থিরতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে আফগানিস্তান। ১৫ আগস্ট অনেকটা রক্তপাতহীনভাবে কাবুল দখলে নেয় তালেবান। এরপর রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে দেশটিতে গুলিতে, বোমা বিস্ফোরণে মারা যান শতাধিক মানুষ। ভিটেছাড়া হন বহু দোভাষী। ভেঙে পড়ে দেশটির অর্থনৈতিক অবস্থা। এরমধ্যে নতুন সরকার গঠন করে তালেবান। তবে এখনো আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি তারা।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *