শনিবার ২৯, জানুয়ারী ২০২২
EN

আমাকে হারাতে ঘরে-বাইরে সবাই চেষ্টা করছে : আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‌আমাকে পরাজিত করার জন্য অনেক পক্ষ এক হয়ে গেছে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‌আমাকে পরাজিত করার জন্য অনেক পক্ষ এক হয়ে গেছে।

পক্ষগুলো ঘরের হতে পারে; বাইরেরও হতে পারে। সবাই মিলেমিশে চেষ্টা করছে কীভাবে আমাকে পরাজিত করা যায়।

আজ শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগ এলাকায় নিজ বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

আইভী বলেন, সহিংসতা যারা করে তারা ঘর বা বাহির বোঝে না। কীভাবে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে নির্বাচনে ঝামেলা করা যায়, সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে সবাই জানে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় নেতারা নারায়ণগঞ্জ নির্বাচনে হয়তো একটি দায়িত্ব পালন করছেন। বিভিন্ন কারণে আসছেন। তাদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি, আইভী কীভাবে রাজনীতি করে এবং ভোটারদের কাছে যায়, উনারা যদি এটা না জানতেন, তাহলে প্রধানমন্ত্রী এই সময়ে আমাকে নৌকা দিতেন না।

প্রধানমন্ত্রী জানেন, উনার আইভী মানুষের দ্বারে যায়। জনগণই আমার শক্তির উৎস। এ ছাড়া বিকল্প নেই। তাই আমি বারবার জনগণের কাছে ফিরে যাই।

নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী বলেন, প্রতিটি নির্বাচনই চ্যালেঞ্জিং। এবার আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং। কারণ, এই নির্বাচনই শেষ নির্বাচন কি না এই মুহূর্তে বলতে পারবো না।

আগামী ১৬ জানুয়ারি ভোট। নির্বাচিত হলে জনগণের কাজ করবো। জনগণ যা চাইবে সেই অনুযায়ী কাজ করবো।

আইভী বলেন, আমি সব সময় শান্তির পক্ষে। আমি মনে করি না যে, সে রকম কিছু (সহিংসতা) হবে আমার তরফ থেকে। আমার ওই ধরনের কোনো বাহিনী নেই। আমি কোনো দিন সহিংসতা করিনি ।

নারায়ণগঞ্জে গিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রভাব খাটানোর বিষয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের অভিযোগের জবাবে আইভী বলেন, নির্বাচন পর্যবেক্ষণে অনেকেই আসেন।

সেটা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হতে পারে অথবা অন্য কেউ হতে পারে। এই ব্যাপারে আমার জানা নেই কারা আসছে আর কারা থাকছে।

আগামী রোববার (১৬ জানুয়ারি) এ সিটিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *