মঙ্গলবার ৩০, নভেম্বর ২০২১
EN

আমেরিকান শিশুদের শীর্ষ নামের তালিকায় ‘‘মুহাম্মদ’’

মুসলিম পরিবারগুলো তাদের নবজাতকের নাম নবী মুহাম্মদ সা. এর প্রতি সম্মান জানিয়ে রাখে রাখেন। তারা মনে করেন এই নাম বাচ্চাদের জন্য সৌভাগ্য নিয়ে আসবে।

মুহম্মদ নামটি প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের ছেলেদের মধ্যে শীর্ষ ১০ জনপ্রিয় শিশুর নামের একটি। এমনটাই জানিয়েছে পেরেন্টিং বিষয়ক ওয়েবসাইট বেবিসেন্টার।

মুহাম্মদ নামটি নবজাতক ছেলেদের রাখা নামগুলোর মধ্যে ১০ম স্থান অধিকার করেছে। যা গত বছর থেকে চার স্থান এগিয়েছে। বেবিসেন্টারের র‌্যাংকিং অনুযায়ী, মুহাম্মদ নামটি ২০১৩ সালে প্রথম শীর্ষ ১০০ নামের মধ্যে চলে আসে।

বেবিসেন্টারের প্রধান সম্পাদক (আন্তর্জাতিক) লিন্ডা মারে জানান, মুসলিম পরিবারগুলো তাদের নবজাতকের নাম নবী মুহাম্মদ সা. এর প্রতি সম্মান জানিয়ে রাখে রাখেন। তারা মনে করেন এই নাম বাচ্চাদের জন্য সৌভাগ্য নিয়ে আসবে।

যুক্তরাষ্ট্রে ছেলের নামের মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে লিয়াম। টানা ছয় বছর ধরে শীর্ষে থাকা জ্যাকসন নামকে পেছনে ফেলেছে প্রথমস্থান দখল করেছে নামটি। অন্যদিকে মেয়েদের নামের মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে সোফিয়া। এটি এক দশক ধরে শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে।

বেবিসেন্টার জানায়, ২০১৯ সালে ৬ লাখ বাবা-মা তাদের নবজাতকের নাম এই ওয়েবসাইটে জানিয়েছে। র‌্যাংকিংয়ে একই উচ্চারণের কাছাকাছি বানানের নামগুলো একই করে দেয়া হয়েছে। যেমন, (Mohammad and Muhammad)।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সামাজিক সুরক্ষা কতৃপক্ষ জন্মগ্রহণকারী সব শিশুর রেকর্ড রাখে। সেখানে শিশুর নামের বানানকে আলাদা আলাদা নাম হিসাবে বিবেচনা করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যানুযায়ী, মুহাম্মদ নামটি ২০০০ সালে ৬২০তম ছিল, আর ২০১৮ সালে ৩৪৫তম ছিল। সংস্থাটি আলাদা বানানকে একসাথে করে দেখায় না।

বেবিসেন্টারের মতে, দেশটিতে আরবি উৎসের নামের পরিমান বাড়ছে। মুহাম্মদ যেমন ছেলেদের নামের মধ্যে শীর্ষ ১০ নামের রয়েছে। তেমনি মেয়েদের নামের মধ্যে আলিয়া নামটিও ১০ম স্থানে রয়েছে।

বেবিসেন্টার র‌্যাঙ্কিং অনুসারে এ বছর ছেলে ও মেয়ে শিশুদের শীর্ষ ১০ নাম।

ছেলেদের সর্বাধিক জনপ্রিয় নাম: ১. লিয়াম, ২. জ্যাকসন, ৩. নোহ, ৪. এইডেন, ৫. গ্রেসন, ৬. কেডেন, ৭. লুকাস, ৮. এলিজা, ৯. অলিভার ও ১০. মুহাম্মদ।

মেয়েদের সর্বাধিক জনপ্রিয় নাম: ১. সোফিয়া, ২. অলিভিয়া, ৩. এমা, ৪. আভা, ৫. আরিয়া, ৬. ইসাবেলা, ৭. অ্যামেলিয়া, ৮. মিয়া, ৯. রিলে ও ১০. আলিয়া। দ্য নিউজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *