মঙ্গলবার ৭, ডিসেম্বর ২০২১
EN

আমার শরীরে আফগানি রক্ত , জন্মসূত্রে আমি আফগানি পাঠান : বলিউড অভিনেত্রী

টুইট না করেই ভারতের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রলের শিকার হচ্ছেন বলিউড অভিনেত্রী ও বিগবস প্রতিযোগী আরশি খান। তার দোষ একটিই— তার জন্ম আফগানিস্তানে। যে কারণে ভারতীয় নেটিজেনদের অনেকে তাকে তালেবান বলে কটাক্ষ করছেন। অবশেষে ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে এ অভিনেত্রীর। ভারতীয় এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে অকপট জানালেন, তার জন্ম আফগানিস্তানে। কিন্তু তিনি ভারতীয় নাগরিক। মনে ও প্রাণে তিনি ভারতীয়। ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে এ অভিনেত্রী বলেন, ‘হ্যাঁ, আমার শরীরে আফগানি রক্ত। জন্মসূত্রে আমি একজন আফগানি পাঠান।’

টুইট না করেই ভারতের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রলের শিকার হচ্ছেন বলিউড অভিনেত্রী ও বিগবস প্রতিযোগী আরশি খান।

তার দোষ একটিই— তার জন্ম আফগানিস্তানে। যে কারণে ভারতীয় নেটিজেনদের অনেকে তাকে তালেবান বলে কটাক্ষ করছেন।

অবশেষে ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে এ অভিনেত্রীর।

ভারতীয় এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে অকপট জানালেন, তার জন্ম আফগানিস্তানে।

কিন্তু তিনি ভারতীয় নাগরিক। মনে ও প্রাণে তিনি ভারতীয়।

ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে এ অভিনেত্রী বলেন, ‘হ্যাঁ, আমার শরীরে আফগানি রক্ত। জন্মসূত্রে আমি একজন আফগানি পাঠান।’

এর পর আক্ষেপ নিয়ে আরশি খান বলেন, ‘আগেও নাগরিকত্ব নিয়ে আমাকে ট্রল করা হয়েছে। এ নিয়ে তৃতীয়বার আমাকে টার্গেট করেছেন তারা।

এই একই কারণে কাজের জায়গাতেও অনেক কথা শুনতে হয়েছে। আমি একটা কথা স্পষ্ট করে জানাতে চাই যে, আমি ভারতীয়। আমার কাছে ভারত সরকারের অনুমোদিত পরিচয়পত্র রয়েছে।’

এর পর নিজের বংশপরিচয় পরিষ্কার করেন আরশি খান। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান না, আমার শরীরে আফগানি রক্ত। আমার পরিবার ইউসুফ জহির পাঠান গোষ্ঠীর।

আমার দাদা আফগানিস্তান থেকে ভারতে চলে এসেছিলেন এবং তিনি ভুপালে স্থায়ী হন। আমার পরিবার যখন ভারতে চলে আসে, তখন আমার বয়স ছিল মাত্র ৪ বছর। আমার শিকড় আফগানিস্তানে, তবে আমি ভারতীয় নাগরিক।’

তবে আফগানিস্তানের বেশ কিছু স্মৃতি তাকে আপ্লুত করে জানান আরশি।

তিনি জানান, আফগানিস্তানে কয়েকজন বন্ধু এবং আত্মীয় রয়েছে তার। চলমান সংকটময় পরিস্থিতিতে তাদের কথা বেশি মনে পড়ছে তার।

২০১৪ সালে তামিল ছবির মাধ্যমে ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন আরশি। এর পরে বিগবস ১১-এ অংশ নেন।

২০১৪ সালের বিগবসেও অংশ নিয়েছেন তিনি। যে কারণে বলি ভাইজান সালমান খানের সঙ্গে তার দারুণ সখ্য রয়েছে। তার ক্যারিয়ারেও বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন সালমান।

অভিনয়, মডেলিংয়ের পাশাপাশি ভারতের রাজনীতিতেও সক্রিয় আরশি। মুম্বাই কংগ্রেস দলের সদস্য তিনি। ‘বিষ’, ‘সাবিত্রী দেবী কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল’-এর মতো সিরিয়ালে অভিনয় করেছেন আরশি।

দ্য লাস্ট এমপারোর নামে একটি বলিউড সিনেমায় কাজ করেছেন আরশি খান। তথ্যসূত্র: স্পটবয়, হিন্দুস্তান টাইমস।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *