রবিবার ২৯, মে ২০২২
EN

ইউক্রেনের হামলায় রাশিয়ার ৪ নাগরিক হতাহত

ইউক্রেনের হামলায় রাশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও তিনজন আহত হয়েছেন। বুধবার বেলগোরোদের গভর্নর ভায়াচেসলাভ গ্লাদোকভ এ হতাহতের অভিযোগ করেছেন।-খবর এএফপির।

বার্তা আদানপ্রদানের অ্যাপ টেলিগ্রামে এক পোস্টে তিনি বলেন, এ পর্যন্ত এক ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছেন। অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি নিহত হন। আহত হয়েছেন আরও তিনজন।

তিনি আরও জানান, চলতি বছর ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের পর তার অঞ্চলটি এক কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। সোলোখি গ্রামকে হামলার লক্ষ্য বস্তু বানিয়েছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। এতে একটি বাড়ি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এমন একসময়ে এ খবর এসেছে, যখন ইউক্রেনে রুশ অভিযানের ৭৭তম দিন চলছে। রাশিয়ার সীমান্ত অঞ্চলে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী হামলা চালাচ্ছে বলে বারবার অভিযোগ করছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

এর আগে বেলগোরোদের একটি তেল স্থাপনায় ইউক্রেনের হামলা চালানোর অভিযোগ করেছে গভর্নর ভায়াচেসলাভ গ্লাদোকভ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবর বলছে, রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হতে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কাছে অনুরোধ করার পরিকল্পনা রয়েছে শহরটির কর্তৃপক্ষের।

বর্তমানে শহরটি পরিচালনা করছে একটি সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসন। গেল ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রতিবেশী ইউক্রেনকে নিরস্ত্রীকরণ ও নতুন নাৎসিমুক্ত করতে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। এর পর মস্কোর সঙ্গে একীভূত হতে যাওয়া প্রথম কোনো অঞ্চল হতে যাচ্ছে খেরসন।

রাশিয়া বলছে, অঞ্চলটি রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডে যুক্ত হবে কিনা, সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার স্থানীয় বাসিন্দাদের। যদিও অঞ্চলটি থেকে বিতাড়িত মেয়র হেন্নাদি লাহুতা বলেন, স্থানীয় বাসিন্দারা দখলদারিত্ব থেকে মুক্ত হয়ে তাদের মাতৃভূমিতে ফিরে যেতে চান।

গেল এপ্রিলে খেরসনের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণের দাবি করে রাশিয়া। অঞ্চলটিতে এখনও বিচ্ছিন্ন রুশবিরোধী বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হতে দেখা যাচ্ছে। খেরসনে একই নামে একটি সমুদ্রবন্দর রয়েছে। ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সঙ্গে এটি সংযোগ রয়েছে। ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া ও পূর্ব ইউক্রেনের রুশ-সমর্থিত বিদ্রোহীদের বিভিন্ন অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নেয় রাশিয়া।

এমআই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *