শুক্রবার ১, জুলাই ২০২২
EN

ইউল্যাব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় বান্ধবী নেহা গ্রেপ্তার

রাজধানীর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ভুক্তভোগী তরুণীর বান্ধবী নেহাকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নেহা ওই তরুণীর ধর্ষণের সহযোগী হিসেবে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।

রাজধানীর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ভুক্তভোগী তরুণীর বান্ধবী নেহাকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নেহা ওই তরুণীর ধর্ষণের সহযোগী হিসেবে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে আজিমপুর এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এবিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানিয়ে দেয়া হবে।

মোহাম্মদপুর থানা সূত্র জানায়, ২৮ জানুয়ারি মদ্যপানের পর থেকে নেহাও অসুস্থ ছিল। তবে গ্রেপ্তারের সময় সে মোটামুটি সুস্থ ও সবল ছিল। সেদিন তারা যে মদপান করেন সেগুলো নেহার ছেলে বন্ধু কিনে এনেছিল। নেহাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, পাশাপাশি তার বন্ধুর পরিচয় পাওয়া গেছে। তাকে খুজতেও অভিযান চলছে।

এর আগে ৩১ ডিসেম্বর একটি পার্টিতে মদপানের পর রহস্যজনক মৃত্যু হয় ইউল্যাব শিক্ষার্থীর। এঘটনায় একটি মামলা করেছে নিহত তরুণীর বাবা। মামলার এজাহারে ওই তরুণীকে মদ্যপান করিয়ে ধর্ষণ ও হত্যার কথা বলা হয়েছে। এতে সহযোগী হিসেবে চারজনের নাম উল্লেখসহ মোট পাঁচজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হচ্ছেন ওই তরুণীর বন্ধু মর্তুজা রায়হান চৌধুরী (২১)। মামলায় যাকে ধর্ষক হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। অন্য চার সহযোগীর মধ্যে তিনজন হচ্ছেন- নুহাত আলম তাফসির (২১), আরাফাত (২৮) ও নেহা (২৫)। আরেক বন্ধুর নাম জানা যায়নি। মামলায় অজ্ঞাত হিসেবে তার নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এই মামলার পাঁচ আসামির মধ্যে আরাফাত নামে একজন মারা গেছেন।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *