মঙ্গলবার ২৫, জানুয়ারী ২০২২
EN

কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট রোগীর জন্য বঙ্গবন্ধুতে পিআরএ পরীক্ষার সুযোগ

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের ভাইরোলজি বিভাগে কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য অপেক্ষমান রোগীদের প্যানেল রিঅ্যাকটিভ এন্টিবডি

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের ভাইরোলজি বিভাগে কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য অপেক্ষমান রোগীদের প্যানেল রিঅ্যাকটিভ এন্টিবডি (পিআরএ) পরীক্ষা চালু হয়েছে।

শনিবার পিআরএ পরীক্ষার সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত এইচএলএ টিস্যু টাইপিং ল্যাবরেটরির উদ্ভোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান।

ল্যাবরেটরিটি চালুর আগে এ পরীক্ষাটি অনেক টাকা খরচ করে বিদেশ থেকে করিয়ে আনতে হতো। বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে এ সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় এখন থেকে রোগীদের অর্থ সাশ্রয়ের পাশাপাশি দ্রুত পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যাবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বলেন, শুধু কথায় নয়, কাজের মাধ্যমেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়কে সেরা প্রমাণ করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দসহ সংশ্লিষ্ট সকলকেই মনে রাখতে হবে, তাদের দায়িত্বটা শুধু ৮টা টু ২টা নয়, তাদের দায়িত্ব সার্বক্ষণিক। এটা কাজের মাধ্যমে প্রমাণ করতে পারলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

ল্যাবরেটরির উদ্বোধনের পর শনিবার দুপুরে ডা. মিল্টন হলে ভাইরোলজি বিভাগের টিস্যু টাইপিং ল্যাবরেটরির সেবা বৃদ্ধি সংক্রান্ত একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সেমিনারে জানানো হয়, সলিড অর্গান ট্রান্সপ্ল্যান্ট রোগীদের প্রয়োজনীয়তা কথা বিবেচনা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ২০০৭ সালে ভাইরোলজী বিভাগে এইচএলএ টিস্যু টাইপিং ল্যাবরেটরি চালু করার অনুমতি প্রদান করে। এরপর পর্যায়ক্রমে টিস্যু টাইপিং ল্যবরেটরিটি উন্নয়নের মাধ্যমে বর্তমানে একটি আন্তর্জাতিক মানের মানসম্মত আধুনিক ল্যবরেটরিতে পরিণত হলো।

এ ল্যাবটরিতে ট্রান্সপ্ল্যান্ট রোগীদের প্রয়োজনীয় পরীক্ষাসমূহ যেমন- এইচএলএ-এ এবং বি টাইপিং, ডিআর টাইপিং, ক্রসমেচিং, অটো ক্রসমেচিং এবং এইচএলএ বি-২৭ টেস্টগুলো নিয়মিতভাবে করা হয় এবং এ ল্যাবরেটরি থেকে প্রাপ্ত টেস্ট রির্পোটের মানও বিদেশের খ্যাতনামা ল্যাবগুলোর সমপর্যায়ের বলে বিশেষজ্ঞরা মতামত ব্যক্ত করেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার।

এছাড়া অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. নজরুল ইসলাম, কিডনী ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. হারুন-উর-রশীদ, বিএসএমএমইউ’র প্রিভেনটিভ অ্যান্ড সোশ্যাল মেডিসিন অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ভাইরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. শাহিনা তাবাস্সুম। এছাড়া সেমিনারে দেশের খ্যাতনামা চিকিৎসক, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় চেয়ারম্যান ও ট্রান্সপ্ল্যান্ট সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

এমএ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *