মঙ্গলবার ৩০, নভেম্বর ২০২১
EN

কোথায় দূষণ বেশি, বলে দেবে মাস্ক

আধুনিক যুগে মোবাইল ও ল্যাপটপ থেকে আমরা অনেক সুফল পাচ্ছি। সব কিছুতেই এখন আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। আর বর্তমানে রাজধানীতে বেড়েছে দূষণ।

আধুনিক যুগে মোবাইল ও ল্যাপটপ থেকে আমরা অনেক সুফল পাচ্ছি। সব কিছুতেই এখন আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। আর বর্তমানে রাজধানীতে বেড়েছে দূষণ। দূষণ থেকে বাঁচতে ঘর থেকে বের হলেই মাস্ক ব্যবহার করেন অনেকে। তবে সব মাস্ক কিন্তু স্বাস্থ্যসম্মত হয় না।

দূষণ থেকে বাঁচার একটাই উপায় হলো মাস্ক। তবে সাধারণ কাপড়ের মাস্ক থেকে নিজের শরীরকে বাঁচানো সম্ভব নয়। তাই এবার বাজারে আসতে চলেছে নেক্সট জেনারেশন এয়ার পলিউশন মাস্ক।

মাস্কটি তৈরি করেছে নেদারল্যান্ডসের কোম্পানি এয়ারব্লিস। কোম্পানির দাবি– মাস্কটি ধূলিকণা থেকে তো বাঁচাবেই; সেই সঙ্গে কোথায় দূষণের পরিমাণ কত সেটিও বলে দেবে।

সব জায়গায় দূষণের পরিমাণ এক রকম হয় না। তাই যে জায়গাগুলোতে দূষণের পরিমাণ কম থাকবে, সেই জায়গাগুলো বাছাই করে এই মাস্কটি আপনার জন্য একটি ম্যাপও তৈরি করে দেবে। সেই ম্যাপটি ধরে আপনি জগিং কিংবা সাইক্লিং করতে পারবেন।

মাস্কটি সম্পর্কে আরও অনেক তথ্য জানা গেছে। আসুন জেনে নিই এই মাস্ক থেকে আরও যেসব সুফল পাওয়া যাবে-

১. মাস্কটিতে থাকা উন্নতমানের ফ্যান সিস্টেমের জন্য সুক্ষ্ম ধূলিকণাগুলো ফিল্টার হয়ে যাবে।

২. ওয়াটারপ্রুফ এই মাস্ককে থাকবে একটি ইউএসবি। তাই আপনি মাস্কটি চার্জ দিতে পারেন।

৩. মাস্কটিতে থাকা এলইডি লাইটস, যেটি দূষণের মাত্রা কমলে বা বাড়লে আপনাকে অ্যালার্ট করবে।

৪. একটি মাস্ক কিনলে দুবছরের জন্য নিশ্চিন্ত।

শিগগিরই এয়ারব্লিস কোম্পানি এ মাস্কটি এশিয়ার বেজিং ও দিল্লি, মধ্যপ্রাচ্যের কিছু দেশে এবং ক্যালিফোর্নিয়ার বাজারে আনবে।

তথ্যসূত্র: জিনিউজ

এমআর

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *