সোমবার ৬, ডিসেম্বর ২০২১
EN

‘করোনার ভ্যাকসিনে হারাম উপাদান থাকলেও গ্রহণ করা যাবে’

করোনার টিকায় শুয়োরের জেলটিন থাকলেও মুসলমানরা তা গ্রহণ করতে পারবে বলে অনুমতি দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সর্বোচ্চ ইসলামি কর্তৃপক্ষ।

করোনার টিকায় শুয়োরের জেলটিন থাকলেও মুসলমানরা তা গ্রহণ করতে পারবে বলে অনুমতি দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সর্বোচ্চ ইসলামি কর্তৃপক্ষ।

টিকার সাধারণ একটি উপাদান জেলটিন। সম্প্রতি প্রশ্ন উঠেছে, শুয়োরের জেলটিন টিকায় ব্যবহার করা হলে তা মুসলমানরা ব্যবহার করতে পারবে কিনা? কারণ ইসলামি আইন অনুযায়ী শুয়োর, তা থেকে তৈরি পণ্য হারাম বলে বিবেচিত।

কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ আবদাল্লাহ বিন বায়য়াজ বলেন, যদি বিকল্প না থাকে তাহলে শুয়োরের কারণে করোনার টিকা গ্রহণ হারাম হবে না। কারণ এ ক্ষেত্রে মানুষের জীবন রক্ষা সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ।

কাউন্সিল জানায়, অতিমাত্রায় সংক্রমিত ভাইরাসের কারণে পুরো বিশ্ব এখন হুমকিতে। ভয়াবহ এ ভাইরাসের সংক্রমণরোধে বেশ কয়েকটি টিকা কার্যকর বলে ইতোমধ্যে দেখা গেছে। টিকায় ব্যবহৃত শুয়োরের জেলটিন ওষুধ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে; খাবার নয়।

আমিরাত সরকার জানায়, বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) একজন জ্যেষ্ঠ নাগরিক এবং একজন স্বাস্থ্যকর্মীর শরীরে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা প্রয়োগের মাধ্যমে দেশটিতে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

রাজধানী আবুধাবি এবং দুবাইসহ ৭টি আমিরাত নিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত গঠিত। মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) দেশটিতে জরুরি টিকা প্রয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়। ওইদিনই বিদেশ থেকে আমিরাতে টিকার চালান পৌঁছায় বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ডব্লিউএএম।

ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা দিয়ে দুবাইতে টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। টিকা গ্রহণকারী একজন নারী এবং এক পুরুষের ছবি দিয়ে দুবাই মিডিয়া অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বলা হয়, প্রথমধাপে ৬০ বছরের বেশি বয়স্ক, জটিল রোগে আক্রান্ত তরুণ, বিশেষ কাজে নিয়োজিত ফ্রন্টলাইনার এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তা-কর্মাচারীদের টিকা দেওয়া হবে।

দুবাই মিডিয়া অফিস থেকে আরও বলা হয়, বয়স্ক ব্যক্তি, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ কর্মকর্তা এবং গাড়ি চালকরা এর অন্তর্ভুক্ত। দুবাইতে প্রথমধাপে তাদের টিকা দেওয়া হবে। দেশটির প্রত্যেক নাগরিক এবং বাসিন্দারা বিনামূল্যে টিকা পাবে বলেও জানানো হয়।

ডব্লিউএএম জানায়, মঙ্গলবার ব্রাসেলস থেকে আমিরাত কার্গো ফ্লাইটে টিকার প্রথম চালান পৌঁছেছে।

আমিরাত কার্গোর চেয়ারম্যান এবং প্রধান নির্বাহী শেখ আহমেদ বিন সাইদ আল মাখতুম এক বিবৃতিতে বলেন, ফ্লাইটে বিনামূল্যে টিকা পরিবহন করতে পারার সুযোগ পাওয়া আমাদের জন্য সম্মানের।

দুবাই মিডিয়া অফিস জানায়, স্বাস্থ্য বিভাগের ছয়টি শাখা টিকা প্রয়োগ কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

চলতি মাসের শুরুতে চীনের তৈরি সিনোফার্মার টিকার অনুমোদন দেয় আমিরাত। ট্রায়ালের ফলাফলে টিকার কার্যকারিতা ৮৬ শতাংশ বলে কর্তৃপক্ষ জানায়।

মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ফাইজার এবং তাদের জার্মান অংশীদার বায়োএনটেকের টিকা ৯৫ শতাংশ কার্যকর বলে জানায়। তাদের ভ্যাকসিন ২১ দিনের মধ্যে দু’বার নিতে হয়।

মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় টিকা সংরক্ষণ করতে হয়। এ কারণে সংশ্লিষ্টদের টিকা পরিবহন এবং সংরক্ষণ ব্যবস্থা উন্নত করতে হচ্ছে।

সংযুক্ত আমিরাতে টিকা কার্যক্রম স্বেচ্ছায় অংশগ্রহণের ভিত্তিতে চলছে। তবে কর্মকর্তারা সাধারণ মানুষকে টিকা নেওয়ার জন্য উৎসাহী করছেন।

চীনরে সিনোফার্ম এবং রাশিয়ার স্ফুটনিক-ভি টিকার তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল সম্পন্ন হয় আমিরাতে।

নভেম্বরে দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রাশিদ আল মাখতুম বলেন, তিনি পরীক্ষামূলক টিকা গ্রহণ করেছেন। ওই সময় আমিরাতের সব কর্মকর্তাকে টিকা গ্রহণে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে এ পর্যন্ত ১ লাখ ৯৭ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৬৪৫ জন।

এএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *