মঙ্গলবার ২৫, জানুয়ারী ২০২২
EN

কালো স্বর্ণ সাদা করলেন দুই শতাধিক ব্যবসায়ী

বরিশাল নগরীতে স্বর্ণ মেলার দুইদিনে ২০ হাজার ভরির বেশি কালো স্বর্ণ সাদা করেছেন সাড়ে চার শতাধিক ব্যক্তি ও ব্যবসায়ী।

বরিশাল নগরীতে স্বর্ণ মেলার দুইদিনে ২০ হাজার ভরির বেশি কালো স্বর্ণ সাদা করেছেন সাড়ে চার শতাধিক ব্যক্তি ও ব্যবসায়ী। এতে আয়কর আদায় হয়েছে দুই কোটি ৪৪ লাখ ৪৪ হাজার ২০০ টাকা।

সোমবার সকালে নগরীর নগরীর গ্র্যান্ড পার্ক হোটেলে দুই দিনব্যাপী স্বর্ণ মেলার উদ্বোধন করেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ।

কর অঞ্চল বরিশালের উদ্যোগে এ মেলার আয়োজন করা হয়। দুই দিনব্যাপী স্বর্ণ মেলার মঙ্গলবার ছিল শেষদিন।

এদিন দুপুর দুইটা পর্যন্ত কালো স্বর্ণ সাদা করলেন দুই শতাধিক স্বর্ণ ব্যবসায়ী। এতে আয়কর আদায় হয়েছে প্রায় অর্ধকোটি টাকা। কর পরিশোধ করে প্রায় সাত হাজার ভরি স্বর্ণ সাদা করেছেন তারা।

বরিশালের উপকর কমিশনার আবুল কালাম আজাদ বলেন, মেলার প্রথমদিন সোমবার ১১৩ জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান প্রায় চার হাজার ভরি স্বর্ণ, রৌপ্য ও হীরা সাদা করেছেন।

এর মধ্যে পিরোজপুর, বরগুনা ও ঝালকাঠির ১০১টি প্রতিষ্ঠান থেকে আদায় করা হয় ৪১ লাখ ১১ হাজার ২৫০ টাকা। পটুয়াখালী ও ভোলার সাতটি প্রতিষ্ঠান থেকে আদায় করা হয় পাঁচ লাখ ৯২ হাজার এবং বরিশালের পাঁচটি প্রতিষ্ঠান থেকে দুই লাখ ৬৫ হাজার টাকা কর আদায় করা হয়।

আবুল কালাম আজাদ আরও বলেন, দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত আরও শতাধিক স্বর্ণ ব্যবসায়ী ও ব্যক্তি তাদের কালো স্বর্ণ সাদা করেছেন। দুইদিনে আয়কর আদায় হয়েছে অর্ধকোটি টাকার বেশি।

বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত এ মেলা চলে। পাঁচটা পর্যন্ত প্রতি ভরি স্বর্ণ ও স্বর্ণালঙ্কারের জন্য এক হাজার টাকা, প্রতি ক্যারেট কাট ও পোলিশড ডায়মন্ডের জন্য ছয় হাজার টাকা এবং প্রতি ভরি রূপার ৫০ টাকা হারে কর পরিশোধ করতে পারবেন।

ব্যবসায়ীরা নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করে পে-অর্ডারের মাধ্যমে যাতে সহজে কর দিতে পারেন এজন্য মেলায় সোনালী ও জনতা ব্যাংকের বুথ স্থাপন করা হয়েছে।

কর সংক্রান্ত তথ্য ও সহযোগিতা প্রদানের জন্য মেলায় হেল্প ডেক্স স্থাপন করা হয়েছে বলেও জানান উপকর কমিশনার আবুল কালাম আজাদ।

এএস

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *