বৃহস্পতিবার ২৭, জানুয়ারী ২০২২
EN

কাশ্মীরি সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে ভারত, মুক্তির আহ্বান সিপিজের

কাশ্মীরে গ্রেপ্তার হওয়া এক সাংবাদিককে মুক্তি দিতে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে আহ্বান জানিয়েছে কমিটি টু প্রোটেক্ট জার্নালিস্টস বা সিপিজে। ভারত-বিরোধী একটি বিক্ষোভের ভিডিও অনলাইনে আপলোড করলে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

কাশ্মীরে গ্রেপ্তার হওয়া এক সাংবাদিককে মুক্তি দিতে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে আহ্বান জানিয়েছে কমিটি টু প্রোটেক্ট জার্নালিস্টস বা সিপিজে। ভারত-বিরোধী একটি বিক্ষোভের ভিডিও অনলাইনে আপলোড করলে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক সংস্থাটি শনিবার জানিয়েছে, সাজাদ গুল নামের ওই সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করা নিয়ে তারা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। তিনি একজন স্বাধীন সাংবাদিক এবং সাংবাদিকতার ছাত্র। এক টুইটে ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে গুলের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে কমিটি টু প্রোটেক্ট জার্নালিস্টস।

এবিসি নিউজের খবরে জানানো হয়, সাজাদ গুলের বাড়ি কাশ্মীরের শাহগুন্দ গ্রামে। গত বুধবার রাতে ভারতীয় সেনারা তাকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়। পরে তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এক বিদ্রোহী নেতাকে হত্যার পর তার পরিবারের সদস্যরা এর প্রতিবাদ জানায়।সেই ভিডিও আপলোড করেছিলেন গুল।

পুলিশ প্রথমে তার পরিবারকে জানিয়েছিল যে, তাকে দ্রুতই ছেড়ে দেয়া হবে। কিন্তু শুক্রবার তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের ষড়যন্ত্র এবং রাষ্ট্রবিরোধী কাজে সহযোগিতার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার আজীবন কারাদণ্ড, এমনকি মৃত্যুদণ্ডও হতে পারে।

কাশ্মীরে অনেক সাংবাদিককেই এই সন্ত্রাস-বিরোধী আইনে গ্রেপ্তার, নির্যাতন ও হেনস্থা করা হয়েছে। কাশ্মীরের সাংবাদিকদের সংগঠন কাশ্মীর প্রেস ক্লাব বারবার সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে, যাতে সাংবাদিকদের স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেয়া হয়।

সেখানে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা গণমাধ্যমকর্মীদের শারীরিকভাবে হামলা করছে এবং হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

২০১৯ সালে কাশ্মীরের বিশেষ আইন বাতিলের মধ্য দিয়ে অঞ্চলটিতে স্বাধীন সাংবাদিকতার পথও বন্ধ হয়ে গেছে। ২০২০ সালে ভারত সেখানে নতুন নীতি অনুমোদন করে। এর অধীনে এখন সরকার যে কোনো রিপোর্টে সেন্সর করতে পারে। সরকারের চাপের কাছে হার মানতে হয়েছে কাশ্মীরের স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *