বৃহস্পতিবার ৩০, জুন ২০২২
EN

গাবতলীতে বউ মেলা, জামাইসহ পুরুষদের ঢুকতে মানা

ঐতিহ্যবাহী ‘বউ মেলা’ বসছে বগুড়ার গাবতলীতে। নতুন জামাই-বউ ও স্বজনদের নিমন্ত্রণ জানানোর মাধ্যমে এ মেলার আয়োজন করা হয়।

ঐতিহ্যবাহী ‘বউ মেলা’ বসছে বগুড়ার গাবতলীতে। নতুন জামাই-বউ ও স্বজনদের নিমন্ত্রণ জানানোর মাধ্যমে এ মেলার আয়োজন করা হয়।

এ মেলা বাঙালির হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্যের অংশ। বহুদিনের ঐতিহ্যকে ধারণ করে সবাই মেতে উঠেছে বাধভাঙা উৎসব-উচ্ছ্বাসে।

দোকানি ছাড়া কোনো পুরুষ মানুষকে ঢুকতে দেয়া হয় না মেলা চত্বরে। মেলা উপলক্ষে এলাকায় চলে নানা উৎসব।

প্রায় ৪০০ বছর আগে বগুড়ার গাবতলী উপজেলার গাড়ীদহ নদীর পাশে ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলার পাশাপাশি ২৪ বছর আগে শুরু হয় বউ মেলা। মূল মেলা থেকে একটু দূরে এ মেলায় পুরষরা ঢুকতে পারেন না।

তাই এ মেলায় নারী শিশু নির্বিঘ্নে কেনাকাটা করতে পারেন। শুধু তাই নয়, এ মেলা উপলক্ষে মেয়ে জামাই ও আত্মীয় স্বজনদের নিয়ে মেতে ওঠেন এলাকাবাসী।

একজন বলেন, ২৭ বছর আগে থেকেই এখানকার যুব সমাজ এখানে একটি বউ মেলার আয়োজন করে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বউ মেলাতে আসতে থাকে জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে নারী ও শিশুরা। নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর পাশাপাশি মেলাতে রয়েছে প্রসাধনী সামগ্রী, শিশুদের খেলনা ও খাবারের দোকান। মেলাতে এসে পছন্দমত জিনিস কিনতে পেরে খুশি দর্শনাথী ও ক্রেতারা।

মেলায় আসা এক বিক্রেতা বলেন, বহু বছর আগে থেকেই আমরা এ মেলায় আসি। এবং এখানে বেচা-বিক্রি খুবই ভালো হয়। তাই এবারও আসছি।

মেলায় আসা এক নারী ক্রেতা বলেন, মেলা দেখে খুবই ভালো মনে হচ্ছে। এখানে মেয়েদের জন্য অনেক সুযোগ সুবিধা রয়েছে।

নিরাপত্তা নিয়ে বেশ সজাগ এলাকাবাসী। আয়োজক কমিটির সদস্যরা নিজেরাই সব ধরনের দায়িত্ব পালন করছেন।

আয়োজক কমিটির সভাপতি মো. জাহিদুর রহমান জানান, যুবক ছেলেরা জীবন দিয়ে হলেও এই বই মেলা রক্ষা করার চেষ্টা করে। 

তো বছর ধরে চলা এ মেলায় আজ পর্যন্ত কোনো মেয়ে অসম্মান হয়নি। সকাল থেকে শুরু হওয়া এ বউ মেলা চলবে সন্ধ্যা পর্যন্ত।

 

এএস

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *