রবিবার ৩, জুলাই ২০২২
EN

জাওয়াহিরির অডিও বার্তা নিয়ে র‌্যাব ও রাসেলের ভিন্ন তথ্য

আল কায়েদা নেতা আয়মান আল জাওয়াহিরির অডিও বার্তা নিয়ে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব ও আটক রাসেল বিন সাত্তার ভিন্ন তথ্য দিয়েছে

আল কায়েদা নেতা আয়মান আল জাওয়াহিরির অডিও বার্তা নিয়ে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব ও আটক রাসেল বিন সাত্তার ভিন্ন তথ্য দিয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর র‌্যাব সদরদপ্তরে আটক রাসেলকে নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই ভিন্ন তথ্য উঠে আসে। সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে র‌্যাবের লিগাল এ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের ডিরেক্টর হাবিবুর রহমান বলেন টাঙ্গাইল থেকে আটক রাসেলই জাওয়াহিরির অডিও বার্তাটি আপলোড করেছে এবং ব্যাপক প্রচারণা চালিয়েছে। রাসেলের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া ল্যাপটপসহ অন্যান্য জিনিসের কথা উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন তার কাছ থেকে আরো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, এ সময় পাশেই ছিল আটক রাসেল। সাংবাদিকদের অনুরোধে রাসেলকে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে দিলে তিনি বলেন, দাওয়া ইলাল্লাহ নামের একটি ব্লগই প্রথমে জাওয়াহিরির এই কথিত অডিও বা ভিডিও বার্তাটি আপলোড হয়। ওই ব্লগটির সাথে ফেসবুকের মাধ্যমে ফ্রেন্ড হওয়ার সুবাদে নিজ ফেসবুকে লিংকটি আসে এমন দাবি করে রাসেল আরো বলেন, সে শুধু এটা প্রচারের জন্য দায়ী কিন্তু এটি আপলোড বা তৈরির সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই।   সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রাসেল বলেন, দাওয়া ইলাল্লাহ নামের ব্লগটি প্রথমে এই অডিও বা ভিডিও বার্তাটি প্রকাশ করেছে বলেই তার ধারণা এবং তারা এটি দেশের বাইরে কোথায় বসে আপলোড করেছে সে সম্পর্কে তার কোন ধারণা নেই। অডিও বার্তাটি আপলোডের সাথে তাকে সম্পর্কিত করা যাবে না এমন দাবি করে রাসেল আরো বলেন, তাকে শুধু বাংলাদেশে এই লিংকটি প্রচারের জন্য দায়ী করা যেতে পারে। রাসেল বলেন, ইসলামকে ভালোবাসা থেকেই ইসলামের নামে যেখানেই যা পেতেন তাই আগ্রহভরে তিনি দেখতেন এবং নিজ ফেসবুকে তা প্রচার করতেন। তার নিজের দুটো ব্লগ আছে, সেখানেও এসব প্রচার করতেন বলেও জানান রাসেল। রাসেল বলেন, দাওয়া ইলাল্লাহ ব্লকটি ফেসবুক ফ্রেন্ড হওয়ার কারণেই আল-কায়েদা নেতা জাওয়াহিরির বাংলাদেশে জিহাদের ডাক সংক্রান্ত অডিও বা ভিডিও বার্তাটি পাওয়া সম্ভব হয়েছে এবং এটি পাবার পর আবেগাপ্লুত হয়েই সে ফেসবুকের মাধ্যমে এটি প্রচার করেছে এবং ছড়িয়ে দিয়েছে। রাসেলের বক্তব্যের এ পর্যায়ে র‌্যাব দ্রুত রাসেলকে ক্যামেরার সামনে থেকে সরিয়ে নিয়ে যায়। উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আল-কায়েদার প্রধান আয়মান আল-জাওয়াহিরির কথিত ভিডিও বা অডিও বার্তা ইন্টারনেটে প্রকাশের অভিযোগে টাঙ্গাইলের মাঝিপাড়া থেকে রাসেল বিন সত্তারকে (২১) আটক করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার ভোর সাড়ে পাঁচটায় তাঁকে আটক করা হয়। সম্প্রতি ইন্টারনেটে প্রচারিত ‘বাংলাদেশ: ম্যাসাকার বিহাইন্ড এ ওয়াল অব সাইলেন্স’ শীর্ষক ২৯ মিনিটের ওই অডিও বার্তাটি গণমাধ্যমের নজরে আসে। বার্তাটি জিহাদোলজি ডটনেট নামের একটি ওয়েবসাইটে রয়েছে। বার্তায় দেখা যায়, আরবিতে আল-কায়েদার প্রধান জাওয়াহিরি বক্তব্য দিচ্ছেন। আর নেপথ্যে তাঁর স্থিরচিত্র। পর্দার নিচে ভেসে উঠছে বক্তব্যের ইংরেজি অনুবাদ। সব মিলিয়ে বার্তাটিকে তাই ভিডিও বার্তা হিসেবেও বিবেচনা করা হয়ে থাকে। আল-জাওয়াহিরির কথিত ওই বার্তাটি যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইন্টারনেটে ছাড়া হয় বলে সোমবার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) একাধিক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। বার্তায় বাংলাদেশে ‘ইসলামবিরোধী ষড়যন্ত্রের’ বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান জানানো হয়। ২৯ মিনিটের বার্তার শুরুতে ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের সমাবেশের ওপর হামলার স্থিরচিত্র দেখানো হয়। তবে আল-জাওয়াহিরি তাঁর বক্তব্যে সরাসরি হেফাজতে ইসলাম বা জামায়াতে ইসলামীর নাম উচ্চারণ করেননি। বক্তৃতার একটি অংশে আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালের বিচার নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি। আল-কায়েদার প্রধান বাংলাদেশ সরকারকে ‘ইসলামবিরোধী’ ও ‘ধর্মনিরপেক্ষ’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। [b]ঢাকা, ১৮ ফেব্রুয়ারি (টাইমনিউজবিডি.কম) // কে বি [/b]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *