রবিবার ২৭, নভেম্বর ২০২২
EN

জঙ্গিরা গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত ঝুঁকি থেকেই যায়: পুলিশ

ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) আদালত চত্বর থেকে গত রোববার (২০ নভেম্বর) দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় তাদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত অবশ্যই ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে বলে দাবি করছে পুলিশ।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) বিপ্লব বিজয় তালুকদার এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ঝুঁকি এড়াতে সারাদেশে পুলিশ ইউনিট ও বর্ডার নিয়ন্ত্রণে যারা রয়েছেন তাদের সবাইকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পুলিশের সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। যে দুই জঙ্গি পালিয়েছে তাদের ছবি প্রতিটি থানায় পাঠানো হয়েছে।

ডান্ডাবেড়ির এক প্রশ্নের জবাবে যুগ্ম-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার আরও বলেন, দুর্ধর্ষ আসামিদের ক্ষেত্রে ডান্ডাবেড়ি পরানোর বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। এ বিষয়গুলো এড়ানোর জন্য সবাইকে সমন্বিত করে একটা জায়গায় আনার চেষ্টা চলছে।

আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার দুদিনের মাথায় তিন কারা উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজন্স) ও দুজন জ্যেষ্ঠ জেল সুপারকে বদলি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগ থেকে বদলির এ প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে প্রজ্ঞাপনে সই করেন উপ-সচিব মোহাম্মদ আবু সাঈদ মোল্লা।

বদলি করা তিন কারা উপ-মহাপরিদর্শকের মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগের কারা উপ-মহাপরিদর্শক এ. কে. এম ফজলুল হককে ঢাকা বিভাগে, রংপুর কারা উপ-মহাপরিদর্শক মো. আলতাব হোসেনকে চট্টগ্রাম বিভাগে ও ঢাকা বিভাগের কারা উপ-মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ তৌহিদুর হককে রংপুর বিভাগে বদলি করা হয়েছে।

আর জ্যেষ্ঠ জেল সুপারের মধ্যে হাই-সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার মো. আব্দুল আজিজকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে ও রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার সুব্রত কুমার বালাকে হাই-সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে বদলি করা হয়েছে।

গত রোববার (২০ নভেম্বর) ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) আদালত চত্বর থেকে দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়। তারা হলেন- মইনুল হাসান শামীম ও আবু সিদ্দিক সোহেল। এ দুজন প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি।

বাংলাদেশে লেখক-প্রকাশক, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টদের ওপর ধারাবাহিক হামলার মধ্যে ২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর রাজধানীর আজিজ সুপার মার্কেটে নিজের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান জাগৃতির কার্যালয়ে খুন হন দীপন।

আনসার আল ইসলাম জঙ্গিরা সে হামলা চালিয়েছিল বলে পরে তদন্তে উঠে আসে। ২০২১ সালে আদালতের দেওয়া রায়ে আনসার আল ইসলাম নেতা সৈয়দ জিয়াউল হকসহ আট জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

গ্রেফতার মইনুল ও সোহেলকে অন্য একটি মামলার শুনানির জন্য সেদিন গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে ঢাকার আদালতে আনা হয়েছিল। শুনানি শেষে তাদের প্রিজন ভ্যানে তোলার আগে পুলিশকে ‘কেমিক্যাল স্প্রে করে’ এ দুই জঙ্গির সহযোগীরা তাদের ছিনিয়ে নেয়।

এন/ইউ/শো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *