মঙ্গলবার ৯, অগাস্ট ২০২২
EN

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি : রাজধানীতে গণপরিবহন সংকট

শত শত মানুষ রাস্তায় দাঁড়িয়ে আছেন বাসের অপেক্ষায়। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর রাজধানীতে দেখা দিয়েছে তীব্র গণপরিবহন সংকট।

শনিবার (৬ আগস্ট) সকাল থেকে রাজধানীর বাড্ডা, রামপুরা, মালিবাগ, মগবাজার, মহাখালী এলাকা ঘুরে দেখা যায়, দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর কোনো কোনো রুটে একটি বাস এলেও সেটিতে ওঠার আশায় ছুটে যাচ্ছেন অনেক বেশি মানুষ। সেসব বাসগুলো আগে থেকে যাত্রীতে পরিপূর্ণ হয়ে আসছে। ফলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে বাসগুলোতে কেউ উঠতে পারছেন না।

রাজধানীর অন্যান্য রাস্তায় গাড়ির অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছেন অনেক যাত্রী। কিন্তু গাড়ির দেখা মিলছে একেবারে কম। এসব গাড়িতে উঠতে যাত্রীদের রীতিমতো যুদ্ধ করতে হচ্ছে। তবে হুড়োহুড়ি করে বাসে ওঠতে না পেরে বয়স্ক ও নারী-শিশুদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে দীর্ঘক্ষণ।

অনেক যাত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলছেন, জ্বালানির এ দাম বাড়ানোয় শুধু গণপরিবহন খাতে নয়, পণ্যপরিবহনেও ভাড়া বাড়বে, যার প্রভাব পড়বে পণ্যের দামে। সমন্বয়হীনতার কারণে এসব ক্ষেত্রেও নজিরবিহীন সংকট দেখা দিতে পারে।

বাসের অপেক্ষায় রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা মুন্না নামে এক যাত্রী গণমাধ্যমকে বলেন, কোনো শনিবারে গণপরিবহনের এমন সংকট দেখিনি। ১ ঘণ্টা ধরে দাঁড়িয়ে আছি কোনো বাসে উঠতে পারছি না।

বেসরকারি চাকরিজীবী হাসনাত কাদির থাকেন রাজধানীর খিলক্ষেতে। তার অফিস তেজগাঁওয়ের সাতরাস্তা এলাকায়। সকালে রাস্তায় বেরিয়েই তিনি দেখেন গাড়ির সংকট, দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর গাড়িতে উঠতে সমর্থ হন তিনি।

হানিফ ফ্লাইওভারের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন গণমাধ্যমকে বলেন, ডিজেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় আজ রাস্তায় গণপরিবহন একেবারে কম। শত শত মানুষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করেও গণপরিবহন পাচ্ছে না।

বাসের অপেক্ষায় থাকা গাজী ইন্টারন্যাশনালে কর্মরত সুমন নামে একজন গণমাধ্যমকে বলেন, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করি। শনিবারেও অফিসে যেতে হয়। সকাল থেকে দাঁড়িয়ে আছি। কোনো বাস পাচ্ছি না। এদিকে অফিসের সময় হয়ে গেছে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের মতো সাধারণ মানুষের কষ্টে সরকারের কিছু আসে যায় না।

হানিফ ফ্লাইওভারের কাজলা মোড়ে দায়িত্বরত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট গণমাধ্যমকে বলেন, আজ রাস্তায় গণপরিবহন অন্যান্য দিনের তুলনায় কম। ডিজেলের দাম বাড়ার কারণে এটা হতে পারে। শুনেছি গতকাল রাত থেকে কোনো পাম্প তেল দিচ্ছে না।

অন্যদিকে, ঢাকার বাইরে অন্য জেলাগুলোতেও পরিবহন সংকটের খবর মিলেছে। জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোয় শনিবার সকাল থেকে গাড়ি চলাচল বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম মহানগর পরিবহন মালিক সমিতি। তারা জানিয়েছে, জ্বালানির দামের সঙ্গে ভাড়া সমন্বয় না হওয়া পর্যন্ত রাস্তায় গাড়ি চলবে না। একই কারণ দেখিয়ে অনেক আন্তঃজেলা পরিবহনও রাস্তায় নামছে না।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১২টার পর জ্বালানি তেলের নতুন দাম কার্যকর হয়েছে। ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ৩৪ টাকা বাড়িয়ে ১১৪ টাকা, পেট্রোলের দাম ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা এবং অকটেনের দাম ৪৬ টাকা বাড়িয়ে ১৩৫ টাকা করা হয়েছে।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *