শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

ঝড় যত শক্তিশালী, রংধনু ততো উজ্জ্বল : শবনম ফারিয়া

‘কেউ যদি কোনো বিষয়ে খুশি হয় আর আলহামদুলিল্লাহ বলে, এইটার মানে তার বিয়ে না! বিয়ে ছাড়াও মানুষের জীবনে আরও অনেক কিছু আছে!’

‘কেউ যদি কোনো বিষয়ে খুশি হয় আর আলহামদুলিল্লাহ বলে, এইটার মানে তার বিয়ে না! বিয়ে ছাড়াও মানুষের জীবনে আরও অনেক কিছু আছে!’

সর্বশেষ ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমনটাই লিখেছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া।

তিনি আরও লিখেছেন, “বিয়ে জীবনের একটা গুরুত্বপূর্ণ পার্ট। পরিবার, ক্যারিয়ার, পড়াশুনা, বন্ধুবান্ধব এগুলাও জীবনের একেকটা পার্ট! এখন সবাই বিয়ে নিয়ে কমেন্ট করে, যা নিয়ে পোস্ট দেই, কমেন্ট করে ‘বিয়ে করবেন কবে’!

কিন্তু বিয়ে করলে আবার বলবে, 'আপনাদের তো বিয়ে টিকে না', 'আবার কবে ছাড়বেন', 'বারোভাতারি', 'মিডিয়ার মানুষ খারাপ, তাদের খালি বিয়ে হয়’!
যেই লোক শখ করে বিয়ে করবে, এইসব কমেন্ট দেখে বিয়ের দিনই ভেগে যেতে পারে!

আর মাশাল্লাহ্ আমাদের সাংবাদিক ভাইরা যেই সুন্দর শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করবেন! সেইটা আর না বলি। দয়া করে আমার বিয়ে নিয়ে আর কমেন্ট কইরেন না।”

সবশেষে এই অভিনেত্রী লিখেন, ‘Been there , done that! শখ মিটে গেছে।’

এর আগের স্ট্যাটাসে ফারিয়া ইংরেজিতে লিখেছিলেন, ‘Alhamdulillah, The greater the storm, the brighter the rainbow।’ যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায়- ‘আলহামদুলিল্লাহ, ঝড় যত শক্তিশালী, রংধনু ততো উজ্জ্বল।’

অভিনেত্রীর সেই স্ট্যাটাসে নেটাগরিকরা তার বিয়ে নিয়ে নানান মন্তব্য করতে থাকেন। কারো কারো মন্তব্যের জবাবও দিয়েছেন।

কিন্তু সেই পোস্টের কমেন্ট পড়ে বিরক্ত হয়েই পরের স্ট্যাটাসটি দেন ফারিয়া।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ১ ফেব্রুয়ারি জমকালো আয়োজনে হারুন অর রশীদ অপুর সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন শবনম ফারিয়া।

বিয়ের ঠিক ১ বছর ৯ মাসের মধ্যে বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন তারা। একে অপরের প্রতি কোনো অভিযোগও নেই তাদের।

দুজনেই চেয়েছেন নিজেদের মতো ভালো থাকতে। তাই আলাদা হয়ে গেছেন। এর আগে ২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের পরিচয় হয়। এরপর বন্ধুত্ব এবং প্রেম।

৩ বছর পর ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে আংটি বদল করেছিলেন সাবেক এই দম্পতি। বিচ্ছেদের পর থেকে এখনো সিঙ্গেল আছেন শবনম ফারিয়া।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *