শুক্রবার ১, জুলাই ২০২২
EN

টিভির সংবাদ শিরোনামে বিজ্ঞাপন প্রচারে নিষেধাজ্ঞার আদেশ স্থগিত

দেশের সকল বেসরকারি টেলিভিশনে সংবাদ প্রচারের বিভিন্ন অংশে কোনও ধরনের বাণিজ্যিক স্পন্সরের বিজ্ঞাপন প্রচারের ওপর হাইকোর্টের জারি করা নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ।

দেশের সকল বেসরকারি টেলিভিশনে সংবাদ প্রচারের বিভিন্ন অংশে কোনও ধরনের বাণিজ্যিক স্পন্সরের বিজ্ঞাপন প্রচারের ওপর হাইকোর্টের জারি করা নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ।

হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে করা আপিলের শুনানি নিয়ে রবিবার (১৮ অক্টোবর) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন ব্যারিস্টার মাসুদ আহমেদ সাঈদ। অন্যদিকে বিটিআরসির পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার খোন্দকার রেজা-ই রাকিব।

এর আগে ২০১৯ সালের ৬ মে দেশের সকল বেসরকারি টেলিভিশনে সংবাদ প্রচারের বিভিন্ন অংশে কোনও ধরনের বাণিজ্যিক স্পন্সরের বিজ্ঞাপন প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। ২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে বেসরকারি সকল টেলিভিশনকে এই রায় মেনে চলতে নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।

এ সংক্রান্ত এক রিট আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি শশাংক শেখর সরকারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

পরে ব্যারিস্টার মাসুদ আহমেদ সাঈদ জানিয়েছিলেন, ‘দেশের সকল বেসরকারি টেলিভিশনে সংবাদ প্রচারের বিভিন্ন অংশে কোনও ধরনের বাণিজ্যিক স্পন্সরের বিজ্ঞাপন নিষেধাজ্ঞা জারি করে রায় ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। ফলে উদাহরণস্বরূপ ‘ইসলামী ব্যাংক বাণিজ্য সংবাদ, অ্যাপোলো হাসপাতাল স্বাস্থ্য সংবাদ—এই টাইপের কোনও টাইটেল স্পন্সর করে সংবাদ পরিবেশন করা যাবে না মর্মে রায় দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

এর আগে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে বিজ্ঞাপন নিলে সেই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে করা সংবাদের নিরপেক্ষতা প্রশ্নবিদ্ধ হয় জানিয়ে ২০১১ সালে হাইকোর্টে এ রিট দায়ের করা হয়। এম এ মতিন নামের এক স্কুলশিক্ষক এ রিট দায়ের করেছিলেন। তবে রিটকারীর মৃত্যুর পর ফারুক মো. হাসিব নামের একজন ব্যবসায়ী ওই রিটে পক্ষভুক্ত হয়ে মামলার কার্যক্রম চলমান রাখেন।

পরে ওই রিটের ওপর রুল জারি করেন হাইকোর্ট। রিটে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিব, আইন মন্ত্রণালয় সচিব, বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেসরকারি সকল টেলিভিশনসহ মোট ২৪ জনকে বিবাদী করা হয়।

এএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *