মঙ্গলবার ৭, ডিসেম্বর ২০২১
EN

নাঈমের হত্যাকারীর ফাঁসি চাইলেন মেয়র তাপস

নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান নিহত হওয়ার ঘটনায় গাড়িচালকের ফাঁসি দাবি করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। কলেজের ছাত্ররা আজ বৃহস্পতিবার নগর ভবনে গিয়ে মেয়রের কাছে ১০ দফা দাবি জানালে তিনি চালকের শাস্তির কথা বলেন।

নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান নিহত হওয়ার ঘটনায় গাড়িচালকের ফাঁসি দাবি করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। কলেজের ছাত্ররা আজ বৃহস্পতিবার নগর ভবনে গিয়ে মেয়রের কাছে ১০ দফা দাবি জানালে তিনি চালকের শাস্তির কথা বলেন।

উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, আমরা অনেক কিছু বলতে পারি না, আপনারা বলতে পারেন। আমাদের অনেক কিছু সহ্য করতে হয়, হজম করতে হয় কিন্তু আপনাদের হয় না ।

মেয়র বলেন, ‘আমার সন্তানের ছুটি হয়েছে তিন দিন। সে যেন একা না থাকে, এজন্য আমি ছুটি কাটিয়েছি। কিন্তু যেদিন এসেছি, সেদিন আমার সন্তান নাঈমকে হারাব, এটা আমি কল্পনাও করতে পারিনি। নাঈম শুধু আপনাদের ভাই, আপনাদের বন্ধুই না, ১৭ বছরের আমার সন্তান। সন্তানহারা পিতা-মাতাকে সান্ত্বনা দেওয়া যায় না।’

‘আমি আমার পিতা-মাতাকে হারিয়েছি মাত্র পৌনে চার বছরে। আমার মনেও কষ্ট ছিল। আমার মনেও আক্রোশ ছিল বড় হয়ে পিতামাতার হত্যার বিচার নিব। নিজ হাতে খুনিদের খুন করব। কিন্তু আমি করি নাই। আমি সব কষ্ট বুকে ধারণ করে আমার মায়ের স্বপ্নপূরণ করেছি। মানুষের মতো মানুষ হওয়ার চেষ্টা করেছি। পড়ালেখা করে পিতামাতার হত্যার বিচার, বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচারের জন এজলাসে দাঁড়িয়েছি। মামলা পরিচালনায় সহযোগিতা করেছি। আমি জানি এ কষ্ট কী।’

মেয়র তাপস শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘আমার সিটি করপোরেশনের সড়কে একজন মেধাবী ছাত্র নাঈম দুর্ঘটনায় মারা যাবে—এজন্য আমি রাজনীতিতে আসি নাই। আমার কাছে আমার সন্তানের সুখ, সন্তানের হাসি, ভালোবাসা অনেক বেশি মূল্যবান। আপনারা যে দাবি জানিয়েছেন, এ দাবির সঙ্গে আমি শুধু একমত পোষণই নয়, আমি দাবি করি সেই খুনির যাতে ফাঁসি হয়। আমি আরো দাবি করব আর যেন ঢাকার সড়কে কোনো নাঈমের প্রাণহানি না ঘটে।’

মেয়র বলেন, দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে করোনা মহামারি চলছে। এখনো অনেক জঞ্জাল রয়েছে, অনেক অনিয়ম রয়েছে। আজকে আপনারা যে শক্তি প্রদর্শন করছেন, সেই শক্তিতে বলিয়ান হয়ে আমি আপনাদের ওয়াদা করি, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জঞ্জাল মুক্ত করে উপরে ফেলব ইনশা আল্লাহ।’

‘যে গাড়িচালক ছিল, সে গাড়ি না চালিয়ে ভাড়াটিয়া গাড়ি চালক দিয়ে গাড়ি চালিয়েছে। সুতরাং সবাইকে শাস্তি ভোগ করতে হবে। আপনাদের সাথে কণ্ঠ মিলিয়ে আমি বলতে চাই, সেই খুনির ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই।’ যোগ করেন ব্যারিস্টার তাপস। এ সময় নিহত নাঈম হাসানের নামে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নিজস্ব অর্থায়নে সেতু, ফ্লাইওভার নির্মাণ করবেন বলেও ঘোষণা দেন তিনি। 

এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের ১০ দফা দাবির বিষয়ে মেয়র বলেন, ‘আমি দাবিগুলো সরকারের উচ্চপর্যায়ে জানাব।’

এর আগে গতকাল বুধবার দুপুর ১১টা ৫৫ মিনিটে ঢাকার কামরাঙ্গীরচরের বাসা থেকে আরামবাগের নটর ডেম কলেজে যাওয়ার পথে গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় ডিএসসিসির ময়লার গাড়ির চাপায় মৃত্যু হয় নাঈম হাসানের। গাড়িটি চালাচ্ছিলেন ডিএসসিসির পরিচ্ছন্নতাকর্মী রাসেল খান। জব্দ করা হয় গাড়িটি। এ ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল ও আজ গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনে অবরোধ করে বিক্ষোভ করে নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থীরা।

এ সময় তারা ১০ দফা দাবি মেয়রের কাছে জমা দিতে নগর ভবনের সামনে যান। মেয়র নিচে নেমে তাদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন। এরপর সহপাঠী নাঈম হাসানের মৃত্যুর বিচার না হলে আগামী রোববার থেকে আবারও রাজপথে নামার হুঁশিয়ারি দিয়ে শিক্ষার্থীরা গুলিস্তানের অবরোধ তুলে নেন।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *