শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

নোংরা রাজনীতির শিকার বিদ্যা সিনহা মিম

সম্প্রতি তিনি গণমাধ্যমকে জানান, তাকে নিয়ে অনেক নোংরা পলিটিকস হয়েছিল। একজন ছিলেন এ ব্যাপারে এগিয়ে। তিনি অবশ্য ওসবে মাথা ঘামাননি।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় মডেল অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা সাহা মীম। লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার ২০০৭ প্রতিযোগিতায় তিনি ১মস্থান লাভ করেন।

২০০৭ সালেই হুমায়ুন আহমেদ পরিচালিত আমার আছে জল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়।

জোনাকির আলো চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তিনি যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার অর্জন করেন।

সম্প্রতি তিনি গণমাধ্যমকে জানান, তাকে নিয়ে অনেক নোংরা পলিটিকস হয়েছিল। একজন ছিলেন এ ব্যাপারে এগিয়ে। তিনি অবশ্য ওসবে মাথা ঘামাননি।

চলচ্চিত্র বাদ দিয়ে নাটকে অভিনয়ে ব্যস্ত হন। নিজের মতো করে কাজ করেন।

তিনি বলেন, আজ আমি কোথায় আর তিনি কোথায়। এখন তো আমি চলচ্চিত্রে সমানতালে কাজ করছি।

বলিউডের একটি সিনেমা ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি কিন্তু মোটেও ইচ্ছে করে এমনটা করিনি। গল্পের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে না পারার কারণে এ সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

তবে বলিউডের সিনেমা ফিরিয়ে দেওয়ায় কেউ কেউ তাকে ভবিষ্যতে বলিউডে কাজ করাটা টাফ হবে বলে জানান।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমি তা মোটেও বিশ্বাস করি না। আমি শুধু আমার না করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছি, গল্প বা অন্য কিছু তো কাউকে বলিনি।

ভারতের কয়েকটি সংবাদমাধ্যমও আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। কিন্তু আমি আর বিষয়টি নিয়ে কথা বাড়াতে চাইনি।

তবে আমি মনে করে, বলিউডে যদি নেক্সট কোনও গল্পে আমাকে দরকার পড়ে অবশ্যই তারা যোগাযোগ করবেন।

বিয়ে নিয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলে এই নায়িকা বলেন, বিয়ে করার বিষয়টি অফিশিয়ালি বলার সময় এখনো আসেনি।

তাছাড়া আমার কোনও বয়ফ্রেন্ডও নেই যে তাকে নিয়ে কথা বলব। তবে একটা কথা বলে রাখি, বিয়ে করলে একবারই করব। দু-তিন বিয়ের পক্ষে আমি নেই।

তাই তো বুঝেশুনে সময় নিয়ে বিয়ের কাজ সেরে নিতে চাই। তবে পরিবারের সবাই চাইছে, আমি যেন বিয়েটা সেরে নেই।

তাহলে কেন করছেন না- এমন প্রশ্নের উত্তরে মিম বলেন, কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকায় নিজেকেই তো সময় দিতে পারি না।

নিজেকে সময় দিতে না পারলে তো পরিবার নিয়ে ভাববার সময় পাব কি না, তা তো জানি না। সিনেমার শুটিং, বিভিন্ন পণ্যের প্রচারণার কাজ, মডেলিং—এত কাজের মধ্যে বিয়ে করার সময় কই।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *