বৃহস্পতিবার ২৭, জানুয়ারী ২০২২
EN

পঞ্চম ধাপেও নৌকাকে পেছনে ফেলল স্বতন্ত্র

বুধবার (৫ জানুয়ারি) পঞ্চম ধাপে ৭০৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই দফায়ও অনিয়ম, সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে। এতে ভোটগ্রহণ বন্ধ করাসহ দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। এ পর্যন্ত নির্বাচনী সহিংসতায় ৯ জন নিহত হয়েছেন। বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) পঞ্চম ধাপে ৭০৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই দফায়ও অনিয়ম, সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে। এতে ভোটগ্রহণ বন্ধ করাসহ দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। এ পর্যন্ত নির্বাচনী সহিংসতায় ৯ জন নিহত হয়েছেন। বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে।

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) ৬৯২ ইউপির চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ১৩টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। আদালতের আদেশে স্থগিত রয়েছে একটি ইউপিতে। আরেকটিতে নির্বাচন বন্ধ ঘোষণা করেছে ইসি। তবে একটি ইউপির ফলাফলের তথ্য সম্পর্কে কিছুই জানায়নি কমিশন।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম সচিব আসাদুজ্জামান আনুষ্ঠানিকভাবে পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনের এ ফল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত ফলাফলে, চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন ৩৪৬টি ইউপিতে। আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়ী হয়েছেন ৩৪১টি ইউপিতে।এ ছাড়া জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম মনোনীত দুজন, জাতীয় পার্টির (জাপা) দুজন ও বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির একজন প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থীদের অধিকাংশ আওয়ামী লীগেরই বিদ্রোহী প্রার্থী। মনোনয়ন না পেয়ে তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। ফলাফলে দেখা গেছে আওয়ামী লীগকে পেছনে ফেলে এগিয়ে আছে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যানরা।

৫ জানুয়ারির ৭০৭ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ হাজার ২০৭ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৭ হাজার ৮০৪ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২৪ হাজার ৮৪৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চম ধাপে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ১৯৩ জন প্রার্থী। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫২ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৩২ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ১০৯ প্রার্থী রয়েছেন।

এর আগে গত, ২১ জুন ও ২০ সেপ্টেম্বর প্রথম ধাপের দুই দফায় ৩৬৯টি এবং ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৩টি ইউনিয়নে, ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউনিয়নে এবং ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে ৮৪০টি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, দেশে চার হাজার ৫৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় চার হাজার ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বাকি ইউনিয়নগুলোতে মামলা জটিলতার কারণে নির্বাচন আটকে রয়েছে।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *