বুধবার ১, ফেব্রুয়ারি ২০২৩
EN

পেট্রোবাংলায় লোক নিয়োগে দুর্নীতির তথ্য চেয়েছে দুদক

পেট্রোবাংলার অধীনস্থ ১৩ কোম্পানিতে গত ৪ বছরে লোক নিয়োগে অনিয়ম ও দুর্নীতির ঘটনায় কি ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে ওই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের কাছে দুই দফায় তথ্য উপাত্ত চেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)

পেট্রোবাংলার অধীনস্থ ১৩ কোম্পানিতে গত ৪ বছরে লোক নিয়োগে অনিয়ম ও দুর্নীতির ঘটনায় কি ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে ওই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের কাছে দুই দফায় তথ্য উপাত্ত চেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার দুপুরে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হোসেন মনসুরের অফিসে ৬টি কোম্পানীর তথ্য- উপাত্ত্ব চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন দুদকের অনুসন্ধানী কর্মকর্তা উপ-পরিচালক আহসান আলী। এর আগে গত বৃহস্পতিবার প্রথম দফা ৭টি কোম্পানীর তথ্য উপাত্ত্ব চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়। টাইমনিউজবিডিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জনসংযোগ কর্মকর্তা ও উপ-পরিচালক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য। অভিযোগ রয়েছে পেট্রোবাংলার ১৩ কোম্পানীতে লোক নিয়োগে শত কোটি টাকার অবৈধ লেনদেন হয়েছে। এ কারণে ওই ১৩ কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে কি ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তার তথ্য উপাত্ত চেয়েছে দুদক। অভিযোগ রয়েছে,নিয়োগ-দুর্নীতি ও যাবতীয় অনিয়মে অধ্যাপক হোসেন মনসুরের  সিন্ডিকেট সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন কর্ণফুলী গ্যাস বিতরণ কোম্পানির এমডি সানোয়ার হোসেন,বাংলাদেশ গ্যাসফিল্ডের এমডি নুরুল ইসলাম, মহাব্যবস্থাপক (মানবসম্পদ)মুজিবুর রহমান,জিটিসিএল এমডি আমিনুর রহমান,পেট্রোবাংলার পরিচালক প্রশাসন রফিকুল ইসলাম,জিএম (প্রশাসন) আইয়ুব খান চৌধুরী ও সংসদীয় কমিটির এক সদস্যের পিএস পরিচয়দানকারী শাহিনুর রহমান প্রমুখ। আরও জানা যায়, পেট্রোবাংলার অধীনস্থ বাংলাদেশ গ্যাসফিল্ড,কর্ণফুলী গ্যাস বিতরণ কোম্পানির জনবল নিয়োগে কোম্পানির বোর্ডের অনুমোদন পর্যন্ত নেওয়া হয়নি। কোম্পানির জিএম কমিটির নিয়োগ সংক্রান্ত সভায় ৩টি পদের জন্য ৩১টি শূন্য পদে নিয়োগের সিদ্ধান্ত হলেও শেষ পর্যন্ত এই পদে লোক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১৪৩ জন। নিয়োগের ক্ষেত্রে জেলা কোটা,মুক্তিযোদ্ধা কোটা,প্রতিবন্ধী কোটা এবং নারী কোটা যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা হয়নি। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ থাকা সত্ত্বেও কম্পিউটার অপারেটর পদের মূল্যায়নে অভিজ্ঞতার জন্য কোনো নম্বর দেওয়া হয়নি, যা এই পদের নিয়োগ প্রক্রিয়াকে নষ্ট করেছে। ১৩ কোম্পানিতে নিয়োগপ্রাপ্ত অধিকাংশই অযোগ্য,অদক্ষ হলেও ছিলেন  চেয়ারেরম্যানের সিন্ডিকেটের পছন্দের প্রার্থী। কর্ণফুলী ও বাংলাদেশ গ্যাসফিল্ডে নয়,এভাবে তিতাস গ্যাস,জালালাবাদ,বাখরাবাদ, জিটিসিএল,সিলেট গ্যাসফিল্ড,বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং,মধ্যপাড়া গ্রানাইড, পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস,সুন্দরবন,রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাসেও লোক নিয়োগ,বদলি ও পদোন্নতিতে  কাজ করেছে ওই সিন্ডিকেট। [b]ঢাকা, একে, ১৮ মার্চ (টাইমনিউজবিডি.কম) // এআর[/b]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *