শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

প্রেসক্লাবে রাজনৈতিক কর্মসূচি বন্ধের সিদ্ধান্তে বিএফইউজে-ডিইউজের প্রতিবাদ

জাতীয় প্রেস ক্লাবে সব দলের রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচি বন্ধের সিদ্ধান্তে বিস্ময়, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ এটিকে গণতান্ত্রিক চেতনার প্রতি হুমকি হিসেবে অভিহিত করে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে সব দলের রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচি বন্ধের সিদ্ধান্তে বিস্ময়, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ এটিকে গণতান্ত্রিক চেতনার প্রতি হুমকি হিসেবে অভিহিত করে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

বিএফইউজে সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন এবং ডিইউজে সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মো: শহিদুল ইসলাম বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, “প্রতিষ্ঠাকাল থেকে জাতীয় প্রেসক্লাব ‘গণতন্ত্র ও সহিষ্ণুতার আধার’ হিসেবে ঐতিহ্য বহন করে চলেছে। এ দেশের সব গণতান্ত্রিক আন্দোলন, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন, সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী আন্দোলন-সংগ্রামে এ প্রতিষ্ঠানের রয়েছে গৌবরোজ্জ্বল ভূমিকা। সকল মত-পথের মানুষের কন্ঠ উচ্চকিত করার, প্রতিবাদ করার, জুলুমের বিরুদ্ধে নির্ভয়ে দ্রোহ করার নিরাপদ স্থান জাতীয় প্রেসক্লাব। অথচ বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটি সেই ঐতিহ্যকে ভুলুণ্ঠিত করে জাতীয় প্রেসক্লাব অভ্যন্তরে সব দলের রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচি বন্ধ ঘোষণা করেছে।”

“প্রেসক্লাবের ব্যবস্থাপনা কমিটির সিদ্ধান্তের বরাতে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তাতে একপেশে এ সিদ্ধান্তের পক্ষে কোন জোরারো যুক্তি বা পট্রমাণ চোখে পড়েনি।”

নেতৃবৃন্দ বলেন, “বিনা ভোটে ক্ষমতাসীন বর্তমান সরকার এমনিতেই বিরুদ্ধবাদীদের কণ্ঠরোধ করতে নানামুখী অপতৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। সরকার নিজেকে গণতান্ত্রিক দাবি করলেও বিরোধী দলের রাজনৈতিক সভা-সমাবেশের ওপর অঘোষিত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে। এ পরিস্থিতিতে গণতন্ত্র সেকায়ার হিসেবে খ্যাত জাতীয় প্রেসক্লাব গণতান্ত্রিক চেতনার ধারক হিসেবে তাদের কিছুটা সুযোগ দিয়ে আসছে প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই। তাছাড়া প্রধানত বিরোধী শিবিরের কাছে দেওয়া হলভাড়া আমাদের প্রিয় প্রতিষ্ঠানের আয়ের অন্যতম উৎস।”

সেখানেও কর্মসূচী পালনে নিষেধাজ্ঞা ক্ষমতাসীন অগণতান্ত্রিক সরকারের ভিন্নমত স্তব্ধ করার ধারাবাহিক এজেন্ডার অংশ বলে নেতৃবৃন্দ মনে করেন।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে এ হঠকারী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে দেশে গণতান্ত্রিক সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত ও তা বিকাশের পক্ষে অবদান রাখার জন্য জাতীয় প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

এমবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *