রবিবার ২৩, জানুয়ারী ২০২২
EN

পেশাদার ক্রিকেটারদের ধানখেতেও ভালো খেলতে হবে : মুমিনুল

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সমর্থকরা মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের উইকেটকে অনেক সময় ধানখেতের উইকেটের সঙ্গেও তুলনা করে।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সমর্থকরা মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের উইকেটকে অনেক সময় ধানখেতের উইকেটের সঙ্গেও তুলনা করে।

তাই পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মাঠে নামার আগে সংবাদ সম্মেলনে টেনে আনেন ধানখেতের কথা।

চট্টগ্রামে এগিয়ে থেকেও হারতে হয় বাংলাদেশকে। তৃতীয়বারের মতো পাকিস্তানের বিপক্ষে লিড দিয়েও সেটি শেষ পর্যন্ত বড় করতে পারেনি ব্যাটারদের ব্যর্থতায়।

তবে ঢাকার উইকেট নিয়ে তো কিছুই আশা করা যায় না। কখন কেমন আচরণ করে শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের উইকেট সেটি বোধহয় প্রধান কিউরেটর গামিনি ডি সিলভা নিজেও জানেন না।

তবে এই মাঠে রয়েছে বেশ বড়বড় সাফল্য। টার্নিং উইকেট বানিয়ে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডকে টেস্ট ম্যাচে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

তবে উপমহাদেশের দলগুলোর বিপক্ষে টার্নিং উইকেট বানিয়ে সেই আশা করা বোকামিই হবে। তাহলে কেমন উইকেট চাই পাকিস্তানের বিপক্ষে।

মুমিনুলকে এই প্রশ্ন করা হলে উত্তরে বলেন, ‘উপমহাদেশের সবাই স্পিন ভালো খেলে। তাদের বিপক্ষে স্পিনিং উইকেট না করাটাই ভালো।

সব দল সেটাই করে। আমার কাছে মনে হয়, ফ্ল্যাট উইকেটই ভালো। আমার এটাই পছন্দ।’

কিন্তু উইকেট যেমনই হোক মুমিনুল বিকল্প দেখছেন না ভালো খেলার। তার মতে, উইকেটে যেমনই হোক খেলতে হবে নিজেদের শতভাগ দিয়ে।

‘পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে উইকেট বা এগুলো নিয়ে অজুহাত দেওয়াটা কখনোই কাম্য নয়। আমিও এটার সঙ্গে একমত হই না।

পেশাদার ক্রিকেটারদের যদি ধানখেতেও দেন, ওখানেই ভালো খেলতে হবে। আমার কাছে মনে হয়, অজুহাত না দিয়ে জেতার জন্য আরেকটু পেশাদার হলে আরও ভালো হয়।’

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *