শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

ফোনের পর্দা ও ইস্পাতে ২৮ দিন বাঁচে করোনাভাইরাস

স্থানভেদে করোনাভাইরাসের জীবনকাল সম্পর্কে যা ধারণা করা হতো, ভাইরাসটি তার চেয়েও বেশিদিন বাঁচতে পারে।

কোভিড-১৯ রোগের জন্য দায়ী নভেল করোনাভাইরাস ব্যাংক নোট, মোবাইলফোনের পর্দা ও স্টেইনলেস স্টিলের (মরিচামুক্ত ইস্পাত) ওপর ২৮ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে বলে অস্ট্রেলিয়ার ন্যাশনাল সায়েন্স এজেন্সির (সিএসআইআরও) বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন।

স্থানভেদে করোনাভাইরাসের জীবনকাল সম্পর্কে যা ধারণা করা হতো, ভাইরাসটি তার চেয়েও বেশিদিন বাঁচতে পারে। তবে নতুন এই গবেষণার ফলাফলের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে একে ‘অকারণে জনগণের মাঝে ভয়ভীতি ছড়ানোর উপায়’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন অপর বিশেষজ্ঞরা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এসব জানানো হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা বলছেন, ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে বা স্বাভাবিক আবহাওয়ায় কাঁচ, মোবাইলের স্ক্রিন, প্লাস্টিক ও টাকার ওপর এই ভাইরাস ২৮ দিন পর্যন্ত বাঁচতে পারে। যেখানে অন্যান্য সংক্রামক ব্যাধির ভাইরাসগুলো সর্বাধিক ১৭ দিন পর্যন্ত টিকে থাকতে সক্ষম।

কিছুদিন আগেও বিজ্ঞানীদের ধারণা ছিল, করোনাভাইরাস ব্যাংক নোট ও কাঁচের ওপর দুই থেকে তিনদিন, প্লাস্টিক ও ধাতব বস্তুর উপর ছয়দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। পাশাপাশি হাঁচি-কাশি ছাড়াও বাতাসে ভাসমান বিভিন্ন বস্তু, ধাতু কিংবা প্লাস্টিকের মাধ্যমে এটি ছড়ায়।

এদিকে যুক্তরাজ্যের কার্ডিফ ইউনিভার্সিটির কমন কোল্ড সেন্টারের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক রন একলেস নতুন গবেষণাটির সমালোচনা করে বলেন, ‘জনগণের মাঝে অযাচিত ভয়ভীতি ছড়ানো ছাড়া আর কিছুই নয়। ভাইরাস মূলত মানুষের নাকের পানি, কফ ও থুতুতে ছড়ায়। এই গবেষণায় এসব ব্যবহার করা হয়নি।’

তবে এর আগে গবেষণায় এমন প্রমাণও মিলেছে যে, উড়ন্ত বাতাসের কণায় করোনাভাইরাস সংক্রমিত হতে পারে। জীবাণুযুক্ত ধাতব বা প্লাস্টিক ছুঁয়েও করোনায় সংক্রমিত হওয়ার কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র (সিডিসি)। তবে এমন উপায়ে সংক্রমণের সংখ্যা খুবই কম।

ভাইরলোজি জার্নালে প্রকাশিত অস্ট্রেলীয় বিজ্ঞানীদের এবারের গবেষণায় আরো দেখা গেছে, সার্স-কোভ-২ ভাইরাস গরমের চেয়ে ঠান্ডায় বেশি সময় টিকে থাকতে পারে। ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সংক্রমণ ক্ষমতা হারিয়েছে এই ভাইরাস।

এএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *