শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

ফিলিস্তিনি কিশোরকে গুলি করে মারলো ইসরায়েল

ফিলিস্তিনের ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরকে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরায়েল। পশ্চিম তীরে দখলদার ইসরায়েলের অবৈধ বসতি নির্মাণ বাড়ানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার সময় ওই কিশোরকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ফিলিস্তিনের ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরকে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরায়েল। পশ্চিম তীরে দখলদার ইসরায়েলের অবৈধ বসতি নির্মাণ বাড়ানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার সময় ওই কিশোরকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মোহাম্মদ দাদাস নামের ওই কিশোর পেটে গুলি লাগার পর শুক্রবার হাসপাতালে মারা গেছে। পূর্বাঞ্চলীয় নাবলাসের বেইত দাজান গ্রামে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া আরও ছয় ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনের রেড ক্রিসেন্ট অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ার গ্যাস ছুড়েছে ইসরায়েলি সেনারা।

তবে এই হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করা হয়নি। বেইতায় পৃথক সংঘর্ষে আরও দুই ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। পশ্চিম তীরের ওই গ্রাম থেকে ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারী এবং সেনাবাহিনীকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য মাসের পর মাস সেখানে লড়াই করে যাচ্ছেন ফিলিস্তিনিরা।

মাত্র কয়েকদিন আগেই ইসরায়েলের পক্ষ থেকে নতুন করে পশ্চিম তীরে আরও তিন হাজারের বেশি অবৈধ বসতি নির্মাণের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের তীব্র সমালোচনার পরেও তারা নিজেদের অবস্থানে অনড় রয়েছে।

পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের জন্য আরও প্রায় ১ হাজার ৩শ বাড়ি নির্মাণেরও ঘোষণা দিয়েছে ইসরায়েল। তবে সমালোচকরা বলছেন, ইসরায়েলিদের জন্য ওই অঞ্চলে অবৈধ বসতি নির্মাণের ঘটনায় আন্তর্জাতিক সমালোচনা এড়িয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টা হিসেবেই এমন পদক্ষেপের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

১৯৬৭ সালে মধ্য প্রাচ্যের যুদ্ধে পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরায়েল। এরপর থেকেই কয়েক লাখ ইসরায়েলি সেখানে বসতি স্থাপন করেছে যা, আন্তর্জাতিক আইনে অবৈধ বলে গণ্য করা হয়।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *