শুক্রবার ২১, জানুয়ারী ২০২২
EN

‘বঙ্গবন্ধু-২’ স্যাটেলাইট তৈরির প্রস্তাব

মহাকাশে দেশের নিজস্ব স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’উৎক্ষেপন করা হয়েছে। এবার দ্বিতীয় স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-২’ তৈরির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

মহাকাশে দেশের নিজস্ব স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’উৎক্ষেপন করা হয়েছে। এবার দ্বিতীয় স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-২’ তৈরির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

ইতোমধ্যে স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-২’ তৈরিতে প্রস্তাব দিয়েছে ফ্রান্স ও রাশিয়া। দেশের প্রথম স্যাটেলাইট তৈরি করে ফ্রান্সের থ্যালাস অ্যালেনিয়া স্পেস।

এবার নতুন করে আরেকটি স্যাটেলাইট তৈরির ক্ষেত্রে প্রতিযোগী দেশ হিসেবে ফ্রান্সের পাশাপাশি রাশিয়া আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-২’ তৈরিতে প্রস্তাব গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর চিঠি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ডাক গ্রহণ ও বিতরণ শাখায় রিসিভ করা হয় ৫ অক্টোবর।

চিঠির অনুলিপি প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, পরিকল্পনামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের পাঠানো হয়েছে।

ফ্রান্সের থ্যালাস কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাবর এক চিঠিতে বলেছে, থ্যালাস অ্যালেনিয়া স্পেস একমাত্র লিডিং স্যাটেলাইট টেলিকমিউনিকেশন নির্মাতা, একইসঙ্গে প্রথম সারির আর্থ অবজারভেশন টেকনোলজিস নির্মাতা।

থ্যালাসের বিশেষত্ব হলো- অতি উচ্চ রেজুলেশনের লো আর্থ অরবিট অবজারভেশন স্যাটেলাইট তৈরিতে সক্ষম। এই স্যাটেলাইট সরবরাহ করে ভালো মানের ছবি জটিল ডাটা বিশ্লেষণ করা যায়।

গুরুত্বপূর্ণ খাত হিসেবে- কৃষি, মৎস্য, নগরপরিকল্পনা, পরিবেশ পর্যবেক্ষণ, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ইত্যাদি কাজে লাগে।

অন্যদিকে রাশিয়া বাংলাদেশের দ্বিতীয় স্যাটেলাইট তৈরি করে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে। রাশিয়া স্যাটেলাইট তৈরি, উৎক্ষেপণ, রক্ষণাবেক্ষণে নিজেরাই সক্ষম বলে জানিয়েছে।

জানা গেছে, রাশিয়ার মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান রজোকসমস স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-২’ তৈরির জন্য প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ সরকারকে।

এটি হবে একটি আর্থ অবজারভেটরি স্যাটেলাইট। যা ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৩০০ থেকে ৪০০ কিলোমিটার উপরে অবস্থান করবে। ফলে দ্বিতীয় স্যাটেলাইটের জন্য অরবিটাল স্লট প্রয়োজন হবে না।

স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-২’ তৈরির বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার গণমাধ্যমকে বলেন, দেশের নতুন স্যাটেলাইট তৈরিতে ফ্রান্সের থ্যালাস ও রাশিয়া প্রস্তাব দিয়েছে।

গতবার কোনো বিকল্প ছিল না, এবার বিকল্প রয়েছে। সেদিক থেকে এখন পর্যন্ত রাশিয়া পছন্দে অগ্রাধিকার রয়েছে।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *