মঙ্গলবার ১৬, অগাস্ট ২০২২
EN

বিদ্যুতের দাম বাড়াতে ১৮ মে গণশুনানি

বিদ্যুতের দাম বাড়াতে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) প্রস্তাবনার পরিপ্রেক্ষিতে গণশুনানির জন্য আগামী ১৮ মে দিন ধার্য করেছে বাংলাদেশ অ্যানার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)।

ওইদিন রাজধানীর নিউ ইস্কাটনের বিয়াম ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে এ গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে বিইআরসি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ অ্যানার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন-২০০৩ অনুযায়ী বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বাবিউবো) বিদ্যুতের পাইকারি (বাল্ক) ট্যারিফ পরিবর্তনের জন্য কমিশনে প্রস্তাব সংবলিত আবেদন দাখিল করেছে। আবেদন পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য কমিশনের গঠিত কারিগরি মূল্যায়ন টিম সুপারিশ করেছে। আগ্রহী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান অথবা সংস্থাকে ২৮ এপ্রিলের মধ্যে শুনানি-পূর্ব লিখিত বক্তব্য বা মতামত কমিশনে পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হলো।

সম্প্রতি বিদ্যুতের পাইকারি (বাল্ক) মূল্যহার ৬৯ শতাংশ বাড়ানোর জন্য বিইআরসির কাছে প্রস্তাব দিয়েছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)। এ ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ার আগাম বার্তাও দিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

বিদ্যুতের দাম বাড়াতে গত জানুয়ারির মাঝামাঝি বিইআরসির কাছে লিখিত প্রস্তাব দেয় দেশের বিদ্যুৎ খাতের শীর্ষ সরকারি সংস্থা পিডিবি। এতে পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম গড়ে ৬৬ থেকে ৭৯ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানোর কথা বলা হয়। গত বছরের নভেম্বরে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বৃদ্ধি কার্যকর এবং জানুয়ারিতে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের মধ্যেই আসে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব।

বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের প্রায় দুই মাস পর গত ২৪ মার্চ সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে নসরুল হামিদ বলেন, সবাই যেন প্রস্তুত থাকে, হয় শকড আসবে, না হয় আসবে না। আগামী দিনগুলোতে যে চ্যালেঞ্জ আসছে, তা মোকাবিলার জন্য যে পরিমাণ ধৈর্য দরকার, তা সবার কাছে আশা করি। দাম বাড়বে কি না- সেটা বিইআরসি বলতে পারবে। প্রস্তাব গেছে, সেটা বিইআরসির সিদ্ধান্ত। তবে আমরা চাচ্ছি, বিদ্যুতের দাম যতটুকু সহনীয় পর্যায়ে রাখা যায়।

এমআই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *