শুক্রবার ১, জুলাই ২০২২
EN

বার কাউন্সিল নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী প্যানেলকে বিজয়ী করার আহ্বান

দেশে আইনের শাসন, ন্যায়বিচার ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আসন্ন বার কাউন্সিল নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী ঐক্য প্যানেল মনোনীত প্রার্থীদের বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল ও সুপ্রীম কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবী অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান আকন্দ।

মঙ্গলবার বিকেলে বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিল সুপ্রীম কোর্ট বার শাখার উদ্যোগে আইনজীবী নেতৃবৃন্দের এক সমাবেশে তিনি এ আহ্বান জানান।

অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান আকন্দ বলেন, ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও মানবাধিকার বলতে কিছু নেই। মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল হচ্ছে আদালত। এ আদালতেও মানুষ নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যে ঘটনা ঘটেছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। সর্বোচ্চ আদালতের আইনজীবীদের পক্ষ থেকে জাতি এটা কামনা করে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘এ সরকারের আমলে মানুষের ভোটাধিকার হরণ করা হয়েছে ও নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করা হয়েছে। বিভিন্ন বার এসোসিয়েশনের নির্বাচন সম্পন্নের যে ধারাবাহিকতা ছিল, তাও এ সরকারের আমলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। এ ধরনের একটি পরিবেশে আগামী ২৫ মে আইনজীবীদের বৃহৎ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আইনজীবীদের পেশাগত দক্ষতা ও উন্নয়ন এবং আইনজীবীদের মধ্যে পেশাদারিত্ব প্রতিষ্ঠা ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বার কাউন্সিলের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। আইনজীবীদের তালিকভূক্তি, সুপ্রীম কোর্টে আইনজীবীদের অন্তর্ভূক্তিসহ আইনজীবীদের পেশাগত সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য বার কাউন্সিলের যে দায়িত্ব রয়েছে তা অনেকাংশেই পালিত হচ্ছে না। এই নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী ঐক্য প্যানেলের প্রার্থীদের বিজয়ী করে আইনাঙ্গণের স্থবিরতা, বিচার প্রাপ্তিতে দীর্ঘ সূত্রিতা ও দুর্নীতির সয়লাব থেকে আদালত অঙ্গণকে উদ্ধার করতে হবে।

তিনি আইনজীবীদেরকে নির্বাচনী প্রচারণায় ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান।’

সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিলের অন্যতম উপদেষ্টা ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ।

অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন মিঠুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট মুহাম্মাদ ইউসুফ আলী, অ্যাডভোকেট এস এম কামাল উদ্দিন, অ্যাডভোকেট আবদুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট সাইফুর রহমান, অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান, অ্যাডভোকেট আবদুল বাতেন, অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন, অ্যাডভোকেট আবদুর রশিদ, অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট মাঈনুদ্দিন এবং অ্যাডভোকেট আবদসু সাত্তারসহ প্রমুখ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *