সোমবার ২৪, জানুয়ারী ২০২২
EN

বাংলাদেশকে ১২৭৫ কোটি টাকা ঋণ দেবে এডিবি

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও বাংলাদেশ সরকার ১৫ কোটি ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১২৭৫ কোটি টাকা) ঋণ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। সোমবার (২৯ নভেম্বর) কোভিড-১৯ মহামারীর পর আর্থ-সামাজিক পুনরুদ্ধারে কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে কুটির শিল্প, ক্ষুদ্র শিল্প এবং ছোট আকারের উদ্যোগগুলোর (সিএমএসই) উন্নয়নে ঋণ সহায়তার জন্য এই চুক্তি করা হয়।

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও বাংলাদেশ সরকার ১৫ কোটি ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১২৭৫ কোটি টাকা) ঋণ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। সোমবার (২৯ নভেম্বর) কোভিড-১৯ মহামারীর পর আর্থ-সামাজিক পুনরুদ্ধারে কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে কুটির শিল্প, ক্ষুদ্র শিল্প এবং ছোট আকারের উদ্যোগগুলোর (সিএমএসই) উন্নয়নে ঋণ সহায়তার জন্য এই চুক্তি করা হয়। আজ এডিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ পরবর্তী ক্ষুদ্র আকারের কর্মসংস্থান সৃষ্টি প্রকল্পের আওতায় এই সহায়তা যুবক, গ্রামীণ উদ্যোক্তা, বিদেশ থেকে ফিরে আসা অভিবাসী শ্রমিক, বিশেষ করে মহিলারা যারা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত, তাদের পরিচালিত সিএমএসইগুলোকে পুনরুজ্জীবিত করবে।

বাংলাদেশের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)-র সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন এবং এডিবির পক্ষে সংস্থার আবাসিক পরিচালক এডিমন জিনটিং রাজধানীর ইআরডিতে এক অনুষ্ঠানে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন।

ইআরডির সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন বলেন, এই সহায়তা কোভিড-১৯ মহামারী থেকে আর্থ-সামাজিক পুনরুদ্ধারে সরকারের প্রচেষ্টাকে ত্বরান্বিত করার ক্ষেত্রে সমর্থন করবে।

এডিবি’র আবাসিক পরিচালক এডিমন জিনটিং বলেন, খাত ভিত্তিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় একটি বিশদ কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে, ব্যাংকের সর্বোত্তম ব্যবহার এবং প্রশিক্ষণ প্রসারিত করে এবং ঋণ গ্রহীতাদের ব্যবসায়িক উন্নয়ন সহায়তার মাধ্যমে একটি বিশদ কর্ম পরিকল্পনা তৈরি করে সিএমএসই-কে অর্থায়নের ক্ষেত্রে মূল বাধাগুলো দূর করবে।

তিনি আরও বলেন, উদ্ভাবনী পদ্ধতি গ্রহণ ছাড়াও প্রকল্পটি ঋণের সাশ্রয়ী মূল্য এবং উপলব্ধতার ভারসাম্যও বজায় রাখবে যাতে ঋণের সুদ কম হয়, যাতে সেই হার সিএমএসইগুলোকে ব্যাংকের ঋণ প্রদানকে অসংবেদনশীল না করে।

প্রকল্পটি থেকে আগামী ২০২৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত কমপক্ষে ৪৫ হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে।

এবিএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *