সোমবার ৬, ডিসেম্বর ২০২১
EN

বিশ্বে রাজধানী সরিয়ে নেয়া কয়েকটি দেশ

ইন্দোনেশিয়া তাদের রাজধানী জাকার্তা থেকে সরিয়ে বোর্নিও দ্বীপে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এর আগেও কয়েকটি দেশ এমন করেছে।

ইন্দোনেশিয়া তাদের রাজধানী জাকার্তা থেকে সরিয়ে বোর্নিও দ্বীপে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এর আগেও কয়েকটি দেশ এমন করেছে।

নাইজেরিয়া: ১৯৯১ সালে লাগোস থেকে আবুজায় রাজধানী সরিয়ে নেয় দেশটি৷ কারণ পরিকল্পনা করে আবুজা শহরটি গড়ে তোলা হয়েছে৷ ফলে সেখানে ঘনবসতি কম৷

পাকিস্তান: করাচি থেকে রাজধানী সরিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে ষাটের দশকে ইসলামাবাদ গড়ে তুলেছিল পাকিস্তান৷ একজন গ্রিক স্থপতির পরিকল্পনায় সবুজ এই শহরটি গড়ে ওঠে৷

মিয়ানমার: চলতি শতকের প্রথম দশকের মাঝামাঝি সময়ে ইয়াঙ্গুন থেকে রাজধানী সরিয়ে নেপিদোতে নিয়ে যাওয়া হয়৷ শহরে বিশ লেনের একটি মহাসড়ক থাকলেও বেশিরভাগ সময়ই তা খালি পড়ে থাকে, কারণ শহরে বাসিন্দার সংখ্যা খুবই কম৷

ব্রাজিল: ১৯৬০ সালে রিও ডি জেনিরো থেকে রাজধানী ব্রাসিলিয়াতে সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু হয়েছিল৷ আধুনিক স্থাপত্যে সমৃদ্ধ শহরটি ১৯৮৭ সালে ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় ঠাঁয় পায়৷

কাজাখস্তান: কয়েক মাস আগেও দেশটির রাজধানীর নাম ছিল আস্তানা৷ সম্প্রতি সাবেক প্রেসিডেন্টের নামে তার নাম করা হয়েছে নূরসুলতান৷ ১৯৯৭ সালে দেশটির রাজধানী ছিল আরেক শহর, আলমাতি৷

মিশর: কায়রো থেকে রাজধানী সরানোর জন্য ৪৫ কিলোমিটার দূরে একটি শহর গড়ে তোলা হচ্ছে৷

ইন্দোনেশিয়া: পানির নীচে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় রয়েছে জাকার্তা৷ তাই সেখান থেকে রাজধানী সরিয়ে বোর্নিও দ্বীপে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্দোনেশিয়া৷ ২০২৪ সালে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন শুরু হবে৷

বলিভিয়া: বলিভিয়ার দুটি রাজধানী। একটির নাম সুকরে, অপরটি লা পাজ। ১৮৯৯ সাল পর্যন্ত সুকরে ছিল দেশটির একমাত্র রাজধানী। ছোট্ট এক যুদ্ধে লা পাজের কাছে হেরে যায় সুকরে। এরপরই পার্লামেন্ট ও সরকারি সংস্থা বলিভিয়ার সবচেয়ে বড় শহর লা পাজে স্থানান্তরিত হয়। তবে বিচারিক কার্যক্রম এখনো সুকরেতে রয়েছে। সুকরে বলিভিয়ার একদম কেন্দ্রে অবস্থিত। সেখানেই বলিভিয়া প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮২৫ সালে। এর জনসংখ্যা আড়াই লাখ। আর লা পাজের জনসংখ্যা ১৭ লাখ।

এএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *