শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

ভারতকে উড়িয়ে নিউজিল্যান্ডের দুর্দান্ত জয়

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলমান সপ্তম আসরে নাজেহাল অবস্থায় ভারত। আগের রোববার রাতে সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে স্রেফ উড়ে যায়

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলমান সপ্তম আসরে নাজেহাল অবস্থায় ভারত। আগের রোববার রাতে সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে স্রেফ উড়ে যায় বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন দলটি। ওই দিন পাকিস্তানের কাছে হেরেছিল ১০ উইকেটে। বিশ্বকাপ আসরে এটিই ছিল পাকিস্তানের কাছে ভারতের প্রথম হার। এরপর সপ্তাহ পার হয়েছে। কিন্তু ভাগ্য বদলায়নি ভারতের। এই রোববারের রাতে ফের হার। এবার নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে ৮ উইকেটে। কিন্তু নিউজিল্যান্ড ৩৩ বল হাতে রেখেই দুর্দান্ত দাপটের সাথে জয় তুলে নিয়েছে। সেখানে ভারত যেন অসহায় আত্মসমর্পণ করে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর ছেড়ে তল্পিতল্পাসহ দেশে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

আগের ম্যাচে ভারতকে ১৫১ রানে আটকে দিয়ে ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানের জয় পায় পাকিস্তান। পাকিস্তানের পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও ছন্নছাড়া ব্যাটিং ভারতের। কিউইদের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে চরম বিপর্যয়ে পড়ে যাওয়া ভারত ইনিংস থামায় ৭ উইকেটে ১১০ রানে।

১১১ রানের মামুলি স্কোর তাড়া করতে নেমে ৩৩ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের জয় পায় নিউজিল্যান্ড। দলের জয়ে ৩৫ বলে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় দলীয় সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেন ওপেনার ড্যারিল মিচেল। ৩১ বলে তিনটি বাউন্ডারিতে ৩৩ রান করে অপরাজিত থেকে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

ভারতের বিপক্ষে টার্গেট তাড়া করতে নেমে দলীয় ২৪ রানে ফেরেন মার্টিন গাপটিল। তিনি জসপ্রিত বুমরাহর শিকার হওয়ার আগে ১৭ বলে করেন ২০ রান। এরপর তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামা অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে সাথে নিয়ে ৫৪ বলে ৭২ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যান ড্যারিল মিচেল। ৩৫ বলে ৪৯ রান করে ফেরেন তিনি। এরপর ডেভন কনওয়েকে সাথে নিয়ে ১৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন কেন উইলিয়ামসন।

এর আগে রোববার দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপর্যয়ে পড়ে যায় ভারত। ট্রেন্ট বোল্টের গতির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ওপোনার ইশান কিশান।

সুরাইয়া কুমার যাদবের পরিবর্তে সুযোগ পেয়ে ওপেনিংয়ে নেমে মাত্র ৮ বলে ৪ রান করে ফেরেন ইশান। তার বিদায়ে ২.৫ ওভারে ১১ রানে প্রথম উইকেট হারায় ভারত।

ইশান কিশান দলে ফেরায় ওপেনিং পজিশন ছাড়েন রোহিত শর্মা। তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমেই ইশান কিশানের মতো ট্রেন্ট বোল্টের বলে ক্যাচ তুলে দেন রোহিত শর্মাও। লংঅনে ফিল্ডিংয়ে দাঁড়িয়ে থাকা এডাম মিলনির হাতে বলটি পড়ে। কিন্তু সহজ ক্যাচটি তার হাত ফসকে পড়ে যায়। শূন্য রানে লাইফ পান ভারতীয় এ তারকা ওপেনার।

৫.৫ ওভারে দলীয় ৩৫ রানে টিম সাউদির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন অন্য ওপেনার লোকেশ রাহুল। দলীয় ৪০ রানে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন শূন্য রানে ক্যাচ তুলে দেওয়া রোহিত শর্মা। সাজঘরে ফেরার আগে ১৪ বলে এক চার ও এক ছক্কায় ১৪ রান করেন তিনি।

রোহিত আউট হওয়ার পর উইকেটে বেশি সময় স্থায়ী হতে পারেননি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ইস সৌদির বলে ট্রেন্ট বোল্টের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন তিনি। তার আগে ১৭ বলে মাত্র ৯ রান করার সুযোগ পান কোহলি।

দলীয় ৭০ রানে ফেরেন ঋষভ পন্থ। অ্যাডাম মিলনির বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। ১৯ বলে মাত্র ১২ রান করার সুযোগ পান তিনি।

এরপর ১৯তম ওভারে দলীয় ৯৪ রানে আউট হন হার্দিক পান্ডিয়া ও শার্দুল ঠাকুর। দলকে সম্মানজনক স্কোর উপহার দিতে শেষ দিকে চেষ্টা করে যান রবিন্দ্র জাদেজা। তিনি ১৯ বলে দুই চার ও এক ছক্কায় দলীয় সর্বোচ্চ ২৬ রান করে অপরাজিত থাকেন।

টানা দুই ম্যাচে পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে কঠোর সমালোচনা মুখে পড়েছে বিরাট কোহলিরা। আর সেমিফাইনালে খেলা এখন দুঃস্বপ্নে রূপ নিয়েছে বিরাট কোহলিদের জন্য।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
ভারত : ২০ ওভারে ১১০/৭ রান (রবিন্দ্র জাদেজা ২৬*, হার্দিক পান্ডিয়া ২৩, লোকেশ রাহুল ১৮, রোহিত শর্মা ১৪, ঋষভ পন্থ ১২; ট্রেন্ট বোল্ট ৩/২০, ইস সৌদি ২/১৭)।

নিউজিল্যান্ড : ১৪.৩ ওভারে ১১১/২ রান (ড্যারিল মিচেল ৪৯, কেন উইলিয়ামস ৩১*, মার্টিন গাপটিল ২০)।

ফল : নিউজিল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী।

এবিএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *