শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

মাদক পাচার করতে গিয়ে ধরা পড়লো বিড়াল!​​​​​​​

অনেকেই হয়তো বিশ্বাস করতে চাইবেন না, কিন্তু ঘটনাটি সত্যি। দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কায় এরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে।

অনেকেই হয়তো বিশ্বাস করতে চাইবেন না, কিন্তু ঘটনাটি সত্যি। দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কায় এরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে। সেখানকার এক কারাগারে মাদক পাচার করতে গিয়ে ধরা পড়ে যায় একটি বিড়াল।

তাকে রাখা হয় জেলের একটি বিশেষ সেলে। কিন্তু সেখান থেকে সে পালিয়েও যায়! হাই সিকিউরিটি ওয়েলিকাডা জেলের এই ঘটনা আলোড়ন তুলেছে শ্রীলঙ্কায়।

সে দেশের সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, শনিবার ওয়েলিকাডা জেল কর্তৃপক্ষ একটি বিড়ালকে ধরে। যার গলায় একটি ছোট্ট প্লাস্টিকের প্যাকেটে প্রায় দুই গ্রাম হেরোইন, দুটি সিমকার্ড ও একটি মেমরি কার্ড ছিল। এসব দেখে জেল কর্তৃপক্ষ বুঝে যায় যে, বিড়ালকে ব্যবহার করে জেলের ভেতর মাদক এবং অন্যান্য নিষিদ্ধ জিনিস পাচারের চেষ্টা চলছিল।

শ্রীলঙ্কার সংবাদপত্র ‘অরুণা’ এক পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, ওই ঘটনায় শনিবার বিড়ালটিকে ধরে জেলেরই একটি বিশেষ সেলে রাখা হয়। কিন্তু রোববার দেখা যায় বিড়ালটি সেখানে নেই, পালিয়ে গিয়েছে।

জেল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, শ্রীলঙ্কার এই কারাগারগুলোতে মাদক পাচারের পরিমাণ বেড়েই চলছে। অনেক সময় পাঁচিলের ওপার থেকে জেলের মধ্যে মাদক বা অন্যান্য নিষিদ্ধ জিনিসপত্র ছুঁড়ে দেওয়া হয়। স্বাভাবিকভাবেই কখনও তা জেল কর্তৃপক্ষের নজরে পড়ে। আবার কখনও তা নজর এড়িয়ে বন্দিদের হাতেও পৌঁছে যায়।

গোটা শ্রীলঙ্কা জুড়েই মাদকের ব্যবসা রমরমা। পশুপাখিদের ব্যবহার করা হচ্ছে এই অবৈধ ব্যবসায়। গত সপ্তাহেই পুলিশ একটি ঈগলকে ধরে। ঈগলের মাধ্যমে কলম্বোর এক শহরতলিতে মাদক পৌঁছে দেওয়া হচ্ছিল। পশুপাখিদের এভাবে ব্যবহার করার ফলে মাদক পাচার রোধের সঙ্গে যুক্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদর কাজ আরও কঠিন হয়ে যাচ্ছে দিন দিন।

এএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *