সোমবার ৬, ডিসেম্বর ২০২১
EN

মায়ের থাকলে সন্তানেরও হতে পারে যে সমস্যা

বিশেষজ্ঞদের মতে, সুস্থ থাকার জন্য মায়ের স্বাস্থ্য ইতিহাস সম্পর্কে জেনে নেয়া জরুরী। জেনে নিন মায়ের থাকলে সন্তানেরও হতে পারে এমন কয়েকটি অসুখের তালিকা।

চেহারা বা আচরণের মিলের পাশাপাশি মায়ের শারীরিক সমস্যার প্রভাবও সন্তানের ওপরে পড়ে। বিশেষজ্ঞদের মতে, সুস্থ থাকার জন্য মায়ের স্বাস্থ্য ইতিহাস সম্পর্কে জেনে নেয়া জরুরী। জেনে নিন মায়ের থাকলে সন্তানেরও হতে পারে এমন কয়েকটি অসুখের তালিকা।

হার্টের সমস্যা: মায়ের যদি হার্ট অ্যাটাকের ইতিহাস থাকে তাহলে সন্তানেরও ঝুঁকি বেড়ে যায় ২০ শতাংশ। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির একটি গবেষণায় আরও জানা গেছে যে মায়ের স্ট্রোক হয়ে থাকলে সন্তানেরও স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

ব্রেস্ট ক্যানসার: মায়ের ব্রেস্ট ক্যান্সার বা টিউমার থাকলে মেয়েরও ব্রেস্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। এমনকি মায়ের দিকের রক্তের সম্পর্কের আত্মীয় যেমন নানী অথবা খালার ব্রেস্ট ক্যান্সার হয়ে থাকলেও এ রোগের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। তাই মায়ের ব্রেস্ট ক্যানসারের ইতিহাস থাকলে ৪০ এর পরে বছরে অন্তত একবার ম্যামোগ্রাম করা উচিত।

আলঝেইমার: মায়ের আলঝেইমার থাকলে সন্তানের ঝুঁকি বেড়ে যায় ৩০-৫০ শতাংশ। তবে ওজন, রক্তচাপ, কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখলে এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করলে ২০ শতাংশ ঝুঁকি কমে যায়।

বিষণ্ণতা: মায়ের বিষণ্ণতার মতো মানসিক সমস্যায় ভোগার ইতিহাস থাকলে সন্তানের ঝুঁকি বাড়ে ১০ শতাংশ। তবে নিয়মিত পর্যাপ্ত ঘুম, মদ্যপান না করা এবং কাজের চাপ নিয়ন্ত্রণে থাকলে এই ঝুঁকি কমে যায়।

মাইগ্রেন: মাইগ্রেনের যন্ত্রণায় অস্থির? খোঁজ নিয়ে দেখুন তো আপনার মায়েরও এই সমস্যা ছিল কিনা। কারণ মায়ের মাইগ্রেনের সমস্যা থাকলে সন্তানের এই সমস্যায় ভোগার সম্ভাবনা ৭০-৮০ শতাংশ।

বয়সের আগে মেনোপজ: সাধারণত ৫০-৫১ বছর বয়সে মেনোপজ হয় বেশিরভাগ নারীর। তবে ২০ শতাংশ নারীর ৪৬ বছর বয়সের আগেই মেনোপজ হয়ে যায়। মায়ের যদি সময়ের আগে মেনোপজ হয়ে যাওয়ার ইতিহাস থাকে তাহলে মেয়ের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকি মাড়ে ৭০-৮৫ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *