সোমবার ১৭, জানুয়ারী ২০২২
EN

যেকোনো সময় একাদশ সংসদ নির্বাচন, প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এজন্য একটি পরিপত্র তৈরিও করা হয়েছে। ওই পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে- যেকোনো সময় একাদশ সংসদ নির্বাচন হতে পারে। এ কারণে সংসদ নির্বাচনী আইন সংস্কার ও নির্বাচনী উপকরণ প্রস্তুত রাখা হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এজন্য একটি পরিপত্রও তৈরি করা হয়েছে। পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে- যেকোনো সময় একাদশ সংসদ নির্বাচন হতে পারে। এ কারণে সংসদ নির্বাচনী আইন সংস্কার ও নির্বাচনী উপকরণ প্রস্তুত রাখা হবে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, একাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে এবার আগেভাগেই প্রয়োজনীয় সব আইন-কানুন সংশোধন করা হবে। এ জন্য নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল মোবারককে দায়িত্বও দেয়া হয়েছে। ক্ষমতাসীনদের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে নির্দেশনা আশার পরই প্রস্তুতি নিতে যাচ্ছে ইসি।

সূত্রটি আরও জানিয়েছে, দশম সংসদ ও চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কতটি স্বচ্ছ ব্যালট বক্স নষ্ট হয়েছে, কতটি ছিনতাই হয়েছে ও কতটি বক্স পুড়ে গেছে তা জানতে চেয়ে আগামী সপ্তাহে জেলা ও উপজেলা নির্বাচন অফিসারকে চিঠি দিবে নির্বাচন কমিশন। ওই চিঠির জবাব পাওয়ার পর নতুন করে কী পরিমাণ নির্বাচনী উপকরণ প্রয়োজন হবে তার চাহিদাপত্র তৈরি করে দ্রুত তা সংগ্রহ করবে নির্বাচন কমিশন।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের একাধিক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের পক্ষ থেকে আরেকটি সংসদ নির্বাচনের জন্য (একাদশ সংসদ) সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কারণ বিএনপিসহ বেশ কয়েকটি রাজৈনিতক দল দশম সংসদ নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় ওই নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখোমুখী হতে হয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে।

এছাড়া ক্ষমতাসীন সরকারকে বিভিন্ন দেশ থেকে সব দলের অংশ গ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্পন্নের জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে। সরকার এ অবস্থা থেকে উত্তরণের পথ খুজছে। আর উত্তরণের পথ হিসেবে নির্বাচন কমিশনকে একাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তারা আরও বলেন, এ বিষয়ে শিগগিরই কমিশনে বৈঠকে বসবে নির্বাচন কমিশন। বৈঠকের পরপরই নির্বাচনী উপকরণ সংগ্রহ করা হবে।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুল মোবারকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে চাননি।
উল্লেখ্য, দশম সংসদ নির্বাচন ব্যাপক সহিংসতার মধ্যে গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে নবম জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল বিএনপিসহ অধিকাংশ দলই বর্জন করে। আর আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্রসহ ১৭টি দল নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।

এছাড়াও নির্বাচনে ৩০০টি আসনের মধ্যে ১৫৩টি আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থীরা বিজয়ী হওয়ায় এ নির্বাচন নিয়ে অনেক বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

ঢাকা, এএম, ৫ জুলাই (টাইমনিউজবিডি.কম) // এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *