রবিবার ৩, জুলাই ২০২২
EN

রাজীব গান্ধীর আরো ৪ হত্যাকারীর মুক্তির ওপর স্থগিতাদেশ

ভারতের শীর্ষ আদালত সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর আরো চার হত্যাকারীর মুক্তির ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছেন। ফলে এ মামলায় দোষী সাব্যস্ত নলিনী শ্রীহরনসহ সাতজনকে মুক্তি দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত তামিলনাড়ু সরকার নিয়েছিল তা ধাক্কা খেল।

ভারতের শীর্ষ আদালত সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর আরো চার হত্যাকারীর মুক্তির ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছেন। ফলে এ মামলায় দোষী সাব্যস্ত নলিনী শ্রীহরনসহ সাতজনকে মুক্তি দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত তামিলনাড়ু সরকার নিয়েছিল তা ধাক্কা খেল। নয়াদিল্লীস্থ সুপ্রিম কোর্ট বৃহস্পতিবার ওই চার হত্যাকারীর মুক্তির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। ১৯৯১ সালে এক তামিল নারীর আত্মঘাতী বোমা হামলায় রাজীব গান্ধী নিহত হওয়ার ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত ওই চার জন যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোগ করছেন। প্রধান বিচারপতি পি সত্যশিবম অপর চার হত্যাকারীর মুক্তির বিরুদ্ধে সরকার পক্ষের যুক্তিতর্ক শোনার পর এ রায় দেন। তিনি বলেন, এ বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তার সময় প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘তার মনে দুটি প্রশ্ন জেগেছে। একটি হলো, অপরাধীদের শাস্তি কমানোর সিদ্ধান্ত সরকারের সঠিক ছিল কি না? আর দ্বিতীয় প্রশ্ন হলো, এক্ষেত্রে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়েছে কি না?’ তামিলনাড়ু সরকারের রাজীব গান্ধী হত্যার অপরাধী ৭ জনকে মুক্তির সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং গত সপ্তাহে বলেন, এটা ন্যায়বিচারের সকল মূলনীতির বিরুদ্ধে। কারণ ‘ওই হত্যাকাণ্ড ছিল ভারতের আত্মার ওপর হামলা।’ মনমোহন সিংয়ের এই মন্তব্য এবং তামিলনাড়ু সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জরুরীভিত্তিতে কেন্দ্রীয় সরকারের আইনি পদক্ষেপের পর আদালত গত সপ্তাহে রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় দণ্ডিত অন্য তিন জনকে মুক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞাদেশ দেন। ১৯৯১ সালের মে মাসে দক্ষিণাঞ্চলের রাজ্য তামিলনাড়ুতে নির্বাচনী প্রচারণাকালে বিচ্ছিন্নতাবাদী তামিল টাইগারের হামলার লক্ষ্যবস্তু হন। তামিল গেরিলাদের নিরস্ত্র করতে ১৯৮৭ সালে শ্রীলংকার সঙ্গে ভারত সরকারের একটি চুক্তির প্রতিশোধ হিসেবে রাজীব গান্ধীকে হত্যা করা হয় বলে ধারণা করা হয়। সূত্র: এএফপি [b]ঢাকা, ২৭ ফেব্রুয়ারি (টাইমনিউজবিডি.কম)//এমএ[/b]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *