বৃহস্পতিবার ২৬, মে ২০২২
EN

রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাত, বিপর্যস্ত হবে ইউরোপের অর্থনীতি?

রাশিয়া-ইউক্রেন সম্ভাব্য যুদ্ধের সময় দেশটির গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হলে ইউরোপের অর্থনীতি বিপর্যস্ত হবে বলে জানিয়েছে একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান।

রাশিয়া-ইউক্রেন সম্ভাব্য সঙ্ঘাতের সময় দেশটির গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হলে ইউরোপের অর্থনীতি বিপর্যস্ত হবে বলে জানিয়েছে একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান।

গতকাল বৃহস্পতিবার ( ২৭ জানুয়ারি) এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে আনাদোলু এজেন্সি।

ইউক্রেনের সাথে রাশিয়ার সঙ্ঘাতের কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলো জ্বালানি সঙ্কটের মধ্যে পড়তে পারে।

কারণ, রাশিয়ার সেনারা ইউক্রেন আক্রমণ করলে ওই দেশ থেকে গ্যাস আমদানি বন্ধ করে দিতে পারে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

এক্ষেত্রে রাশিয়া তাদের গ্যাস যদি ইউরোপে রফতানি না করে বা রুশ গ্যাসের ওপর যদি নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয় তবে জ্বালানি ও অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্যে পড়বে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলো।

এ সময় ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোকে নতুন করে গ্যাসের উৎস খুঁজতে হবে এবং তাদের চাহিদা মেটানোর ব্যবস্থা করতে হবে বলে জানিয়েছে বেলজিয়ামের ব্রাসেলস-ভিত্তিক থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ব্রুগেল।

গত বৃহস্পতিবার এমন তথ্য প্রকাশ করেছে গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি।

ইউরোপ কি রাশিয়ার গ্যাস ছাড়া চলতে পারবে? শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদনে বেলজিয়ামের ব্রাসেলস-ভিত্তিক থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ব্রুগেল বিভিন্ন তথ্য দিয়েছে।

ব্রুগেল বলেছে, রাশিয়া থেকে গ্যাস আমদানি বন্ধ করলে ইউরোপের অর্থনীতি গ্রীষ্মকাল পর্যন্ত টিকে থাকতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে এনএলজি (তরল গ্যাস) আমদানি বাড়াতে হবে ও শিল্পক্ষেত্রে গ্যাসের ব্যবহার কমাতে হবে।

এ গবেষণা প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, রাশিয়া থেকে গ্যাস আমদানি বন্ধ করলে ইউরোপের অর্থনীতি সঙ্কটের মধ্যে পড়বে।

বিশেষ করে কিছু ইউরোপীয় দেশের অর্থনীতি বিপর্যস্ত হয়ে যাবে। কারণ, এসব ইউরোপীয় দেশ রাশিয়ার গ্যাসের ওপর নির্ভরশীল এবং অন্য ইউরোপীয় দেশগুলো থেকে বিচ্ছিন্ন। এসব দেশের জন্য জরুরি ব্যবস্থা নিতে হবে।

তবে শীতকালে রাশিয়ার গ্যাস ছাড়া ইউরোপীয় দেশগুলো একটা বড় সঙ্কটের মধ্যে পড়বে। কারণ, রাশিয়া হলো ইউরোপের সবচেয়ে বড় গ্যাস সরবরাহকারী। সূত্র : আনাদোলু এজেন্সি।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *