মঙ্গলবার ২৫, জানুয়ারী ২০২২
EN

লকডাউন দেয়ার কথা এখনই ভাবছি না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সরকার এখনই লকডাউন দেয়ার কথা ভাবছে না। তবে সব ধরনের গণপরিবহনে যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে আগের নির্দেশনা মেনে চলতে হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

সরকার এখনই লকডাউন দেয়ার কথা ভাবছে না। তবে সব ধরনের গণপরিবহনে যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে আগের নির্দেশনা মেনে চলতে হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

আজ রোববার ( ৯ জানুয়ারি) রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ঢাকায় নিযুক্ত কূটনীতিকদের জন্য করোনার বুস্টার ভ্যাকসিনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আগেরবারের মতোই আমরা সব জায়গায় যাত্রীর সংখ্যা কমিয়ে দেব। আমরা একই পদ্ধতি অনুসরণ করব। ভাল খবর হল করোনার কারণে মৃত্যুর হার খুবই কম। তাই আমরা লকডাউনের কথা ভাবছি না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কারণে আমরা বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত দিয়ে ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করবো।

আব্দুল মোমেন বলেন, আর যারা সীমান্ত দিয়ে ভ্রমণ করছেন, তাদের আরো বেশি স্বাস্থ্য সুরক্ষা ব্যবস্থা মেনে চলা উচিত। আশা করি, আমরা আমাদের দেশের জনগণকে রক্ষা করতে পারব।

ডা. মোমেন বলেন, আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে তারা ঢাকার সব কূটনীতিক এবং তাদের সংশ্লিষ্টদের জন্য এই বিশেষ টিকাদান কর্মসূচির ব্যবস্থা করতে পেরেছেন।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে তাদের ভ্যাকসিন সরবরাহের ক্ষেত্রে ‘কিছু অসুবিধা’ থাকলেও সরকার টিকা দেয়ার ক্ষেত্রে অনেক দক্ষতা অর্জন করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা অত্যন্ত কৃতজ্ঞ যে অনেক দেশ এগিয়ে এসেছে এবং তারা কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় আমাদের ভ্যাকসিনের ডোজ দিয়ে সহায়তা করেছে।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে প্রচুর ভ্যাকসিন রয়েছে এবং আশা করি আমরা সবাইকে টিকা দিতে পারব।

তিনি জানান, ১২ বছর বা তার বেশি বয়সী শিক্ষার্থীসহ দেশের ৮০ শতাংশ লোককে করোনার টিকা দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

তিনি বলেন, এই মহামারি বিষয়টি এমন যে কেউ একা এটি মোকাবিলা করতে পারবে না। পারস্পরিক অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতার মাধ্যমে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে। আমি খুবই কৃতজ্ঞ যে অনেক দেশ আমাদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে।

ডা. মোমেন বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা ঠিক আছি। কিন্তু আমাদের নিজেদের রক্ষায় সচেতন হতে হবে। আমি প্রত্যেককে যতটা সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছি।

এসময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলি কূটনৈতিকদের বুস্টার ভ্যাকসিনেশনের ব্যবস্থা করার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানান। সূত্র : ইউএনবি।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *