মঙ্গলবার ২৫, জানুয়ারী ২০২২
EN

লন্ডনে দেখা হয়েছিল, ওটাই শেষ দেখা হবে ভাবিনি: তিশা

‘ডুব’-ই ইরফান খানের প্রথম বাংলা ছবি ছিল। আর এটাই তাঁর শেষ বাংলা ছবি হয়ে রয়ে গেল।

বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী’র ‘ডুব’ ছবির হাত ধরেই প্রথমবার বাংলা ছবিতে অভিনয় করেন ইরফান খান। ‘ডুব’-ই ইরফান খানের প্রথম বাংলা ছবি ছিল। আর এটাই তাঁর শেষ বাংলা ছবি হয়ে রয়ে গেল।

ইরফান খানের সঙ্গে ডুব ছবিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা কথা জানিয়ে অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা বলেছেন, গত বছর লন্ডনে দেখা হয়েছিল, ভাবিনি এটাই শেষ দেখা।

জিনিউজিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন অভিনেত্রী তিশা। পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ডুব ছবির মধ্য দিয়ে প্রথমবার বাংলা ছবিতে অভিনয় করেন ইরফান। আর এটাই তার শেষ বাংলা ছবি।

জিনিউজকে তিশা বলেন, ইরফান খানের সঙ্গে ডুব ছবিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা খুবই ভালো। অনেক দীর্ঘদিন ধরে শুটিং হলেও দীর্ঘ মনে হয়নি। ইরফান খান কাজের সময় ইম্প্রোভাইজড করতে পছন্দ করতেন। তাই ওনার সঙ্গে কাজ করতে খুব ভালো লেগেছে।

তিশা আরও বলেন, গত বছর লন্ডনে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। আমি আর ফারুকী ওখানে একটা ফেস্টিভ্যালে যোগ দিতে গিয়েছিলাম। ওটাই যে শেষ দেখা হবে ভাবিনি।

প্রসঙ্গত, পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ডুব ছবিতে বাবা-মেয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিশা ও ইরফান। তাদের অভিনীত ডুব ছবিটি অস্কারের জন্যও পাঠানো হয়েছিল। বহু আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে দেখানো হয় ছবিটি।

এএস

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *