শুক্রবার ৩, ডিসেম্বর ২০২১
EN

শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের হুমকি: সেই চালক-হেলপার আটক

বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের হুমকি দেয়া ঠিকানা পরিবহনের ড্রাইভার রুবেল এবং হেলপার মেহেদী হাসানকে আটক করেছে র‌্যাব। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে তাদের আটক করা হয়। রাতে র‌্যাবের ক্ষুদে বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের হুমকি দেয়া ঠিকানা পরিবহনের ড্রাইভার রুবেল এবং হেলপার মেহেদী হাসানকে আটক করেছে র‌্যাব। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে তাদের আটক করা হয়। রাতে র‌্যাবের ক্ষুদে বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

সোমবার এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরা হবে বলে র‍্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর শনিরআখড়ায় ঠিকানা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে বদরুন্নেসা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রী অর্ধেক ভাড়া দিতে চাইলে তাকে ধর্ষণের হুমকি দেয় বাসচালকের সহকারী।

এ ঘটনার প্রতিবাদে ও বাসচালকের সহকারীকে গ্রেফতার এবং যানবাহনে অর্ধেক ভাড়া নির্ধারণে রোববার সড়কে নেমে বদরুন্নেসা কলেজসহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। পরে দুপুর পৌনে ১২টার পর দুদফা দাবি পূরণের জন্য ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়ে সড়ক অবরোধ তুলে নেন।

সকাল ১০টার দিকে বাসে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ পাস ভাড়া নির্ধারণ ও ধর্ষণের হুমকিদাতার বিচার দাবিতে রাজধানীর বকশীবাজার মোড়ে সড়কে অবস্থান নেন বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা। তাদের সঙ্গে যোগ দেন আরও কয়েকটি কলেজের শিক্ষার্থীরা।  অবরোধের কারণে চানখাঁরপুল থেকে বকশীবাজার, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও বুয়েট অভিমুখী সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।  এসময় শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে।

পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের লোকজন অর্ধেক ভাড়া নেওয়ার আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা সকাল পৌনে ১২টার দিকে অবরোধ তুলে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।  

বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী শবনম হাসনাত বলেন, আমরা সারাদেশে বাসে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নেওয়ার দাবিতে আন্দোলন করছি। এছাড়া বাসে নারীদের নিরাপত্তার দাবি তুলছি। প্রশাসনের অনুরোধে আজকে আন্দোলন প্রত্যাহার করে নিলেও আমাদের দাবি মানা না হলে আমরা পুনরায় আন্দোলনে নামব।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২৭ নম্বর ওয়ার কাউন্সিলর ওমর বিন আজিজ বলেন, আমরা কলেজ ও স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে ক্যা ম্পাসে নিয়ে এসেছি। তাদের যৌক্তিক দাবি কীভাবে বাস্তবায়ন করা যায়, সে লক্ষ্যে আলোচনা চলছে বলে জানান তিনি।

এমআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *