রবিবার ২৭, নভেম্বর ২০২২
EN

সত্যের জয় হয়েছে : চিত্রনায়িকা নিপুণ

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা নিপুণ বলেছেন, নয় মাস ধরে আপিল বোর্ডের সবাই আমার সঙ্গে একটা যুদ্ধ করে গেছেন। উচ্চ আদালত একটা সঠিক রায় দিয়েছেন। আমি মহামান্য উচ্চ আদালতের কাছে অনেক অনেক কৃতজ্ঞ। আদালত সঠিক রায় দিয়েছেন।

নিপুণ আরও বলেন, আজ নয় মাস ধরে এটা নিয়ে অনেক কিছু হচ্ছিল। কখনো আমি থাকবো বা কখেনো আমার অপজিশন যিনি তিনি থাকবেন। তবে আমার একটা বিশ্বাস ছিল।

আমি এবং কাঞ্চন ভাই সততার সঙ্গে নির্বাচন করেছি। নির্বাচনের সব নিয়ম যথাযথভাবে পালন করেছি। নিয়মনীতির বাইরে একদম্ই যাইনি। সেজন্য আমরা খাবারও পাইনি, পানিও পাইনি। একটা ওয়াশ রুম ব্যবহার করতে পারিনি। সব মেনে নিয়েছি। তবে আমার বিশ্বাস ছিল সত্যের জয় হবে। আপনারা সবাই পাশে ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। আপনাদের কারণেই এই দুর্নীতিগুলো সবার সামনে উঠে এসেছে।’

নির্বাচনে টাকা লেনদেনের ব্যাপারে নিপুণ বলেন, আমরা একটা গান বানিয়ে ছিলাম, ‘টাকা দিয়ে ভোট কেনার দিন শেষ’- সে গানটা নিয়েও আপত্তি ছিল। সেই গানটাই আজ সত্যি হলো। টাকা নিয়ে ভোট কেনা হচ্ছিল আমি সেটাই প্রমাণ করেছি।

উল্লেখ্য, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বৈধ বলা হাইকোর্টের রায় স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে নিপুণের লিভ টু আপিল গ্রহণ করে তাকে আপিলের অনুমতি দিয়েছেন আদালত। ফলে সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালণে আপাতত বাধা নেই।

নিপুণের সাধারণ সম্পাদক পদ ফিরে পাওয়ার এই খবরে আনন্দে ভাসছে শিল্পী সমিতি। সাধারণ সম্পাদককে বরণ করতে সদস্যরা ছুটে আসেন এফিডিসিতে। ঢাকঢোল বাজিয়ে ঘোড়ার গাড়িতে করে ফুল নিয়ে আসেন শিল্পীরা। তারা নিপুণকে ফুলের মালা গলায় দিয়ে বরণ করে নেন।

এসময় নিপুণের সঙ্গে আরও ছিলেন সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন, সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইমন সাদিক, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক মামনুন ইমন। আরও ছিলেন আরমান, জেসমিন, ডি এ তায়েবসহ অনেকেই।

প্রসঙ্গত, ২৮ জানুয়ারি সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিএফডিসিতে শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক (২০২২-২৪) মেয়াদের নির্বাচনে সভাপতি হিসেবে ইলিয়াস কাঞ্চন ভোট পেয়েছেন ১৯১টি। অপরদিকে তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী মিশা সওদাগর পেয়েছেন ১৪৮ ভোট। সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জায়েদ খান পেয়েছেন ১৭৬ ভোট। তার বিপরীতে নিপুণ পেয়েছেন ১৬৩ ভোট।

এছাড়া সহ-সভাপতি- ডিপজল (২১৯) ও রুবেল (১৯১), সহ-সাধারণ সম্পাদক- সাইমন সাদিক (২১২), সাংগঠনিক সম্পাদক- শাহানূর (১৮৪), আন্তর্জাতিক সম্পাদক- জয় চৌধুরী (২০৫), দফতর ও প্রচার সম্পাদক- আরমান (২৩২), সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক- ইমন (২০৩), কোষাধ্যক্ষ- আজাদ খান (১৯৩), কার্যকরী পরিষদ পদে রোজিনা (১৮৫), মৌসুমী (২২৫), কেয়া (২১২), জেসমিন (২০৮), অঞ্জনা (২২৫), অমিত হাসান (২২৭), চুন্নু (২২০), আলিরাজ (২০৩), সুচরিতা (২০১), ফেরদৌস (২৪০) ও অরুণা বিশ্বাস (১৯২)। নির্বাচনে কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন পীরজাদা হারুন। এবার সমিতির ভোটার সংখ্যা ছিল ৪২৮ জন। ভোট দিয়েছেন ৩৬৫ জন। বাতিল ১০ ভোট। ৩৫৫টি ভোট বৈধ।

এন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *