সোমবার ২৭, জুন ২০২২
EN

স্ত্রী পেটানো স্বামীর পক্ষে ৩০ শতাংশ নারী

ভারতের অন্তত ৩ টি রাজ্যে ৭৫ শতাংশেরও বেশি নারী মেনে নিয়েছেন স্ত্রীদের গায়ে হাত তোলার মধ্যে যুক্তি রয়েছে।

ভারতের ন্যাশানাল ফ্যামিলি হেল্থ সার্ভে-৫। ভারতজুড়ে চালানো হয়েছিল এই জাতীয় সমীক্ষা।

ওই সমীক্ষায় প্রশ্ন করা হয়েছিল, আপনার মতে, স্ত্রীকে পেটানো স্বামীর পক্ষে কি যুক্তিযুক্ত?

আর তার উত্তরে ভারতের অন্তত ১৪টি রাজ্য ও কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চলের ৩০ শতাংশ নারীর উত্তর ছিলো, হ্যাঁ।

এদিকে তার পেছনে যুক্তি শুনে হতবাক অনেকেই। তারা মনে করেন বিশেষ পরিস্থিতিতে স্ত্রীদের গায়ে স্বামীদের হাত তোলার মধ্যে যুক্তি আছে।

এনএফএইচএস-৫ সার্ভেতে ভারতের অন্তত ৩ টি রাজ্যে ৭৫ শতাংশেরও বেশি নারী মেনে নিয়েছেন স্ত্রীদের গায়ে হাত তোলার মধ্যে যুক্তি রয়েছে।

তেলেঙ্গানা প্রদেশ ৮৪ শতাংশ,

অন্ধ্র প্রদেশ ৮৪ শতাংশ ও

কর্ণাটক প্রদেশ ৭৭ শতাংশ

নারীরা বউ পেটানো স্বামীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে এই সংক্রান্ত পরিসংখ্যানের দিকে একবার চোখ বোলানো যাক।

মণিপুরে ৬৬ শতাংশ,

জম্মু ও কাশ্মিরে ৪৯ শতাংশ,

মহারাষ্ট্রে ৪৪ শতাংশ এবং

পশ্চিমবঙ্গে ৪৪ শতাংশ

নারীরা মনে করেন স্ত্রীকে পেটানোর মধ্যে যুক্তি রয়েছে।

নারীরা এর পেছনে যুক্তি খুঁজে পেয়েছেন। আর স্বামীর এই আচরণের পেছনে নারীদের একটা বড় অংশের দাবি বিভিন্ন কারনে স্বামীরা স্ত্রীদের গায়ে হাত তুলতেই পারেন।

যেমন:

১) ঘর ও বাচ্চাদের অবহেলা করলে,

২) শ্বশুরবাড়ির প্রতি অশ্রদ্ধা,

৩) বেশি মুখরা হওয়া,

৪) নানা কারণে অহেতুক সন্দেহ করার জেরে,

৫) সহবাস করতে না চাওয়া,

৬) স্বামীকে না বলে বাইরে যাওয়া,

৫) ঘরের কাজকর্ম না করা,

৬) ভালো খাবার তৈরি না করা ।

এইসকল কারনে স্বামীরা স্ত্রীদের গায়ে হাত তুলতেই পারেন। এমনটাই মনে করছেন পরিসংখ্যানে আসা নারীরা। তথ্যসূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।

এইচএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *