মঙ্গলবার ৩০, নভেম্বর ২০২১
EN

সাম্প্রদায়িকতা নির্মূল করে সমাজতন্ত্রের পথে এগিয়ে যেতে হবে : ইনু

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের চিরশত্রু সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গিবাদ নির্মূল করে সুশাসন ও সমাজতন্ত্রের পথে এগিয়ে যেতে হবে।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের চিরশত্রু সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গিবাদ নির্মূল করে সুশাসন ও সমাজতন্ত্রের পথে এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি রোববার জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছরের মাথায় দেশে গড় আয়ু, মাথা পিছু আয়, জীবন-যাপনের মান বৃদ্ধি, চরম দারিদ্র হ্রাস, বিদ্যুতায়ন ও যোগাযোগ অবকাঠামোর সম্প্রসারণসহ দেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অনেক উন্নতি হলেও ধর্মান্ধ সাম্প্রদায়িকতা-মৌলবাদ-জঙ্গিবাদসহ চারটি বিপদ প্রতিনিয়ত বড় হয়ে উঠছে। এরা রাষ্ট্রের অস্তিত্বের ভিত্তিকে আঘাত করছে। সংবিধান-আইন-কানুন রাজনৈতিক নেতৃত্বকে চ্যালেঞ্জ করছে ।

জাসদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বাংলাদেশকে আরেক ধাপ এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের চিরশত্রু ধর্মান্ধ সাম্প্রদায়িকতা-মৌলবাদ-জঙ্গিবাদ নির্মূল করে সাম্প্রদায়িক হামলা পুনরাবৃত্তি চিরতরে বন্ধ করে রাজনৈতিক ও সামাজিক শান্তি নিশ্চিত করা, অপরাধী যেই হোক তাদের বিচার ও শাস্তি সম্মুখীন করতে সুশাসন ও আইনের শাসন নিশ্চিত করা এবং মুক্তবাজার অর্থনীতির ভ্রান্ত ধারণা থেকে বেরিয়ে সমাজতন্ত্রের পথে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি গণআন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

একই সাথে জাসদের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে যারা জাসদের সংগ্রাম এগিয়ে নিতে জীবন দিয়েছেন, আত্মত্যাগ করেছেন, ত্যাগ স্বীকার করেছেন, জেল-জুলুম-নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সেই নেতা-কর্মীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। তিনি বলেন, জাসদের ৪৯ বছরের ইতিহাস প্রমাণ করেছে, জাসদ নেতাদের দল নয়, কর্মীদের দল। দলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, নেতারা দলের পাহারাদার মাত্র।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জাসদের কার্যকরী সভাপতি এড. রবিউল আলম, স্থায়ী কমিটির সদস্য মোশাররফ হোসেন, অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, সহ-সভাপতি মীর হোসাইন আখতার, আফরোজা হক রীনা, নুরুল আখতার, ফজলুর রহমান বাবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদের চৌধুরী প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে মশাল প্রজ্জ্বলন করা হয় এবং মশাল মিছিল শিখা চিরন্তনে গিয়ে শেষ হয়। এছাড়াও দিবসের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিল ভোর ৬ টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলণ এবং সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে দলের শহীদ ও প্রয়াত নেতাদের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা নিবেদন। সূত্র : বাসস।

এবিএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *