মঙ্গলবার ৩০, নভেম্বর ২০২১
EN

হাতের কাছেই প্রাকৃতিক শ্যাম্পু

দোকানে কিনতে পাওয়া যায় এমন শ্যাম্পুতে ব্যবহার করা হয় রাসায়নিক পদার্থ। প্রাকৃতিক শ্যাম্পু ব্যবহারে সহজেই এড়িয়ে যাওয়া যায় এই বিষয়টি। পাশাপাশি ভালো থাকে চুল। চুলের যেকোনো সমস্যার শুরুই হয় অপরিষ্কার চুল থেকে। প্রাচীনকালে পরিষ্কারক হিসেবে বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদানের ব্যবহার বেশ জনপ্রিয় ও পরিচিত ছিল। একালে অবশ্য চুল পরিষ্কারক হিসেবে শ্যাম্পুই একমাত্র সহজ উপায়। তবে একেবারেই প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি ঘরোয়া শ্যাম্পুও কেনা শ্যাম্পুর মতোই সমান কার্যকর। এ ছাড়া কৃত্রিম উপাদান ব্যবহার না করায় চুলে বাড়তি কিছু উপকারও পাওয়া যায়।

দোকানে কিনতে পাওয়া যায় এমন শ্যাম্পুতে ব্যবহার করা হয় রাসায়নিক পদার্থ। প্রাকৃতিক শ্যাম্পু ব্যবহারে সহজেই এড়িয়ে যাওয়া যায় এই বিষয়টি। পাশাপাশি ভালো থাকে চুল।

চুলের যেকোনো সমস্যার শুরুই হয় অপরিষ্কার চুল থেকে। প্রাচীনকালে পরিষ্কারক হিসেবে বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদানের ব্যবহার বেশ জনপ্রিয় ও পরিচিত ছিল। একালে অবশ্য চুল পরিষ্কারক হিসেবে শ্যাম্পুই একমাত্র সহজ উপায়। তবে একেবারেই প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি ঘরোয়া শ্যাম্পুও কেনা শ্যাম্পুর মতোই সমান কার্যকর। এ ছাড়া কৃত্রিম উপাদান ব্যবহার না করায় চুলে বাড়তি কিছু উপকারও পাওয়া যায়।

“এ যদি হইত শুধু ফুল...

বৃন্দ হতে সযত্নে আনিতাম তুলে

পরায়ে দিতাম কালো চুলে।”

কবিমনের মতো আপনারও হয়তো কালো চুলে ফুল গোঁজার ইচ্ছা হয়। এমন মনের মতো চুল পাওয়ার প্রথম শর্তই হলো সঠিক শ্যাম্পু।

চুল সঠিক শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কারের ব্যাপারে অনেকেরই দেখা যায় অনীহা। অনেক সময়ে সারা সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও চুল পরিষ্কার করা হয় না। প্রাকৃতিক কিছু উপাদান ব্যবহার করেই নিজে নিজেই তৈরি করে নেওয়া সম্ভব শ্যাম্পু। এই ধরনের শ্যাম্পুর সবচেয়ে বড় উপকার হলো, এটি চুল পরিষ্কার করার পাশাপাশি নির্দিষ্ট কিছু সমস্যাও কমায়। এ ছাড়া আপনার চুলের ধরন বুঝে শ্যাম্পু তৈরির উপাদান বাছাই করতে পারবেন। এতে করে চুল পরিষ্কার ও যত্ন-দুটিই একসঙ্গে হয়ে যায়, বলছিলেন হার্বস আয়ুর্বেদিক ক্লিনিকের আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ আফরিন মৌসুমী। নিজে নিজে শ্যাম্পু বানিয়ে নেওয়ার সহজ কিছু টিপসও দিয়েছেন এই রূপবিশেষজ্ঞ।

প্রকৃতি থেকে পাওয়া শ্যাম্পু

রিঠা
চুল পরিষ্কার করতে প্রাচীনকাল থেকেই রিঠা সুপরিচিত। খুব সহজ উপায়ে রিঠা দিয়ে শ্যাম্পু তৈরি করে ফেলা যায়। এক কাপ গরম পানিতে ছয়টি রিঠা সারা রাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। গোসলের সময় এই পানি চুলে দিয়ে শ্যাম্পুর উপকার পাওয়া যাবে। চুলে তেল দেওয়া থাকলে রিঠার পানি তেলের চিটচিটে ভাব কমায় ও চুল ঝরঝরে করে।

মসুরের ডাল
মসুরের ডাল মিহি করে বেটে এতে দুই চা–চামচ বেকিং সোডা, একটি পুরো লেবু মিশিয়ে চুল পরিষ্কার করতে পারেন। তৈলাক্ত্ব ত্বকের জন্য ভালো প্রাকৃতিক শ্যাম্পু।

বেসন
যেকোনো ডালের বেসন এক কাপ পানিতে গুলে ফোটাতে হবে। এভাবে সারা রাত রাখুন। গোসলের সময় এটি শ্যাম্পু হিসেবে চুলে ব্যবহার করা যায়। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই শ্যাম্পু বেশ উপকারী।

খুশকি ও উকুন দূর করতে
মটরের ডাল ও নিমপাতা ভালোভাবে বেটে নিন মিহি করে। এতে মেশাতে হবে দুই চা–চামচ বেকিং সোডা। এটি প্রাকৃতিকভাবেই উকুন ও খুশকি কমাবে।প্রথম আলো

উপকারিতা
* প্রাকৃতিক উপাদানের শ্যাম্পু প্রাণহীন চুল করে ঝলমলে।

* ত্বকে অ্যালার্জি থাকলে প্রাকৃতিক শ্যাম্পু সে ক্ষেত্রে আরাম দেবে।

* চুল নরম ও কোমল রাখতে উপকারী প্রাকৃতিক শ্যাম্পু।

* রং করা চুলের জন্য প্রাকৃতিক শ্যাম্পু উপকারী।

এমবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *