রবিবার ৩, জুলাই ২০২২
EN

হাসপাতালে সার্জনরাই কেবল অস্ত্রোপচার করতে পারবে: হাইকোর্ট

দেশের সব হাসপাতালের সার্জারি ব্যবস্থা তদারকি ও সার্জনদের (শল্যচিকিৎসক) মাধ্যমে অস্ত্রোপচার নিশ্চিত করতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে হাসপাতাল প্রধানদের প্রতি নির্দেশনা জারি করতে স্বাস্থ্যসচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকদেরও নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

দেশের সব হাসপাতালের সার্জারি ব্যবস্থা তদারকি ও সার্জনদের (শল্যচিকিৎসক) মাধ্যমে অস্ত্রোপচার নিশ্চিত করতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে হাসপাতাল প্রধানদের প্রতি নির্দেশনা জারি করতে স্বাস্থ্যসচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকদেরও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি এ বি এম আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এক রিটের শুনানি নিয়ে এ নির্দেশ দেন ও রুল জারি করেন। নির্দেশনা বাস্তবায়নের অগ্রগতি প্রতিবেদন আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে দাখিল করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি ‘স্বাস্থ্য নেশা চিকিত্সা সেবা: চিকিত্সকেরা ব্যস্ত রাজনীতি ও দলবাজিতে, অপারেশনের ছুরি-কাঁচি ওয়ার্ডবয়দের হাতে’ শিরোনামে একটি দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। রাজশাহী মেডিকেলে ওয়ার্ডবয়রা অস্ত্রোপচার করছে এমন তথ্যসহ ওই প্রতিবেদন যুক্ত করে গত সপ্তাহে হাইকোর্টে রিট করে মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিত রায়। আদালত রাজশাহী মেডিকেলের ওই ঘটনা তদন্ত করার জন্য এক সপ্তাহের মধ্যে একটি কমিটি গঠন করতে নির্দেশ দিয়েছেন। কমিটিকে ওই নির্দেশনা বাস্তবায়নের অগ্রগতি আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া ঘটনার ব্যাখ্যা জানাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের পরিচালক ও রেজিস্ট্রারকে ৫ মার্চ আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে। রুলে হাসপাতালগুলোতে উন্নত ও নিরাপদ স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না—তা জানতে চাওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যসচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলের সভাপতি ও সম্পাদক, রাজশাহী মেডিকেলের পরিচালক ও রেজিস্ট্রারকে দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। [b]ঢাকা, ১৮ ফেব্রুয়ারি (টাইমনিউজবিডি.কম) // কে বি [/b]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *