বুধবার ৮, ডিসেম্বর ২০২১
EN

হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

হোয়ইটওয়াশের লজ্জা এড়ানোর ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ। প্রথম দুই টি-টোয়েন্টি হেরে ইতোমধ্যেই পাকিস্তানের কাছে সিরিজ হাতছাড়া করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এখন সম্মান রক্ষার এ ম্যাচে জয় পেতে চায় টাইগাররা।

হোয়ইটওয়াশের লজ্জা এড়ানোর ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ। প্রথম দুই টি-টোয়েন্টি হেরে ইতোমধ্যেই পাকিস্তানের কাছে সিরিজ হাতছাড়া করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এখন সম্মান রক্ষার এ ম্যাচে জয় পেতে চায় টাইগাররা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে দুপুর ২টায় পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। অন্য দিকে সর্বশেষ বাংলাদেশ সফরে সিরিজ হারের প্রতিশোধ হোয়াইটওয়াশ দিয়ে নিতে চায় সফরকারী পাকিস্তান।

সিরিজের প্রথম ম্যাচটি ৪ উইকেটে পরাজিত হলেও প্রতিন্দ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট খেলেছে বাংলাদেশ। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে লড়াই করতে পারেনি টাইগাররা। ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান। দ্বিতীয় ম্যাচে ফখর জামানের ৫১ বলে অপরাজিত ৫৭ রানের সুবাদে সহজ জয় পায় পাকিস্তান।

জয়ের ধারায় ফিরতে ব্যর্থ হলে এই ফরম্যাটে ঘরের মাঠে একাধিক ম্যাচ সিরিজে প্রথমবারের মতো হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পাবে বাংলাদেশ।

গেল এক মাসের মধ্যে টি-টোয়েন্টিতে টানা সাত ম্যাচ হেরেছে বাংলাদেশ। আর শেষ ১০ ম্যাচের আট ম্যাচে হারের লজ্জা রয়েছে টাইগারদের। যদিও এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের তৃতীয় দীর্ঘতম হারের ধারা এটি। ২০০৭-২০১০ পর্যন্ত দীর্ঘতম টানা ১২ ম্যাচ হেরেছিল বাংলাদেশ।

আর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০১৬-১৭ সালে টানা আটটি ম্যাচ হেরেছিল বাংলাদেশ। কাল যদি পাকিস্তানের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয় বাংলাদেশ, তবে যৌথভাবে নিজেদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ টানা ম্যাচ হারবে টাইগাররা।

পাকিস্তানের বিপক্ষে শেষ হওয়া প্রথম দুই ম্যাচে যথাক্রমে ৭ উইকেটে ১২৭ রান ও ৭ উইকেটে ১০৮ রান করেছিল বাংলাদেশ। ব্যাটিং ব্যর্থতা অব্যাহত থাকলে ঘরের মাঠে এক ম্যাচের বেশি কোনো সিরিজে প্রথমবারের মতো হোয়াইটওয়াশ হবে বাংলাদেশ।

এমন অবস্থায় বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ বলেন, হারের বৃত্ত থেকে বের হতে ব্যাটারদের জ্বলে উঠতে হবে।

প্রথম দুই ম্যাচে, নিজেদের পারফরমেন্স অব্যাহত রেখেছে পাকিস্তান। এখন শেষ ম্যাচে জয়ী হয়ে সিরিজ শেষ করার প্রত্যাশায় বাবর।

বাংলাদেশ দল : মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), নাইম শেখ, নাজমুল হোসেন শান্ত, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, শেখ মাহেদি, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, শামীম হোসেন, নাসুম আহমেদ, সাইফ হাসান, ইয়াসির আলি চৌধুরি, শহিদুল ইসলাম এবং আকবর আলী।

পাকিস্তান দল : বাবর আজম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফকর জামান, হায়দার আলী, শোয়েব মালিক, খুশদিল শাহ, মোহাম্মদ নওয়াজ, শাদাব খান, হ্যারিস রউফ, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, শাহিন শাহ আফ্রিদি।

এবিএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *