সোমবার ৬, ডিসেম্বর ২০২১
EN

১৯ দিনে ৪ হাজার ৬০০ টন ইলিশ ভারতে, দেশের বাজারে আগুন

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ৪ হাজার ৬০০ টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ৪ হাজার ৬০০ টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সন্ধ্যায় বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ১৮৬ টন ইলিশ মাছ ভারতে রপ্তানি করে ১২ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান।

এর আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর (বুধবার) ১০৩ টন এবং ২৩ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) ২০৯ টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি করা হয়। ৩ দিনে ভারতে পাঠানো হয় মোট ৪৯৮ টন ইলিশ।

এর ধারাবাহিকতায় বুধবার-শনিবার পর্যন্ত ৪৯৮ টন ইলিশ ভারতে রফতানি করা হয়েছে। বাকি ইলিশ পর্যায়ক্রমে রপ্তানি হবে। আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে সব ইলিশ রপ্তানির নির্দেশনা রয়েছে।

গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ১০ অক্টোবর অর্থাৎ ১৯ দিনের মধ্যে এই ৪ হাজার ৬০০ টন ইলিশ ভারতে পাঠানো হবে।

অপরদিকে আগামী ১৪ অক্টোবর-৪ নভেম্বর পর্যন্ত টানা ২২ দিন মা ইলিশ রক্ষায় নদীতে চলবে নিষেধাজ্ঞা।

এই শেষ সময় চাঁদপুরে চাহিদা বেশি থাকায় ইলিশের দাম ক্রেতাদের হাতের নাগালের বাইরে চলে গেছে।

বাজারে যে পরিমাণ ইলিশ আছে তা কেজি প্রতি ১৪শ' থেকে ১৬শ' টাকায় বিক্রি হচ্ছে ।

এসব ইলিশ স্থানীয় পদ্মা-মেঘনা এবং ভোলা থেকে এসেছে। দাম বেশি হলেও এসব ইলিশ কিনতে ঘাটে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড় দেখা যায়।

১ অক্টোবর শুক্রবার চাঁদপুর বড়ষ্টেশনের মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে গিয়ে এ চিত্র দেখা যায়।

মাছঘাটে ইলিশ কিনতে আসা ক্রেতারা সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, বাসা থেকে ইলিশ কিনতে ঘাটে এসেছি। ভেবেছিলাম ১ কেজি সাইজের ইলিশ সর্বোচ্চ ৯শ' থেকে ১ হাজার টাকা হবে।

কিন্তু এখন এসে দেখি ১৪শ' থেকে ১৬শ' টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মানুষের ভীড়ে ইলিশ কিনতে দাঁড়াতে পর্যন্ত পারছি না। তবুও আমরা আশা করছি ৪-৫ কেজি ইলিশ কিনবো।

ইলিশ মাছ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান অর্পিতা ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের মালিক বিশুদানন্দা আচার্জী জানান, এবার প্রতি কেজি ইলিশের রপ্তানিমূল্য ১০ মার্কিন ডলার; যা বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজি ৮৫০ টাকা।

ভারত ও বাংলাদেশ উভয় দেশের কাস্টমস থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ইলিশের এ চালান রপ্তানি করা হচ্ছে।

এ ব্যপারে একাধিক মাছের আড়ৎদার সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, ভারতে কয়েকদিনের ব্যবধানে ইলিশ পাঠানোর প্রভাব আমাদের এই মাছঘাটে পড়েছে।

স্থানীয় ক্রেতাদের চাপ সামলাতেই হিমশিম খাচ্ছি। লোকাল বাজারে মাছ নেই এবং দক্ষিণাঞ্চলের নদীতে যে ইলিশ ধরা পড়েছে তার অধিকাংশই রপ্তানির ঘাটতি মেটাতেই এই চাপ ঘাটে। তাই ক্রেতাদের চাহিদা সামলাতে ইলিশের দাম কয়েকগুণ বেড়ে গেছে।

চাঁদপুর মৎস্য বনিক সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী শবে বরাত সরকার সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, ১ কেজি সাইজের পদ্মা-মেঘনার ইলিশের দাম ১৪শ' থেকে ১৬শ' টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

গত বছর এ সময় এই ইলিশের দাম ৭শ' থেকে ৮শ' টাকা থাকলেও এবার ইলিশের বাজারে আগুন।

প্রচুর লোক ইলিশ কিনতে ঘাটে আসলেও দিনে ২০০ মণ ইলিশও বিক্রি করা যাচ্ছেনা। আমদানি যথেষ্ট কিন্তু কম সময়ের ব্যবধানে ৪ হাজার ৬০০ টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি করায় এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।

ফলে, আমরা অনলাইনেও ইলিশ বিক্রি কমিয়ে দিয়েছি।

চাঁদপুর মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি আব্দুল বারি জমাদার মানিক সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, ২২ দিনের মা ইলিশ রক্ষা অভিযান আগামী ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হবে বলে ঘাটে ইলিশ কিনতে ক্রেতাদের ভীড় বেড়েছে।

কিন্তু মাছ কম থাকায় চাহিদা বেশি হওয়ায় ইলিশের দাম তুলনামূলক বেশি রাখতে হচ্ছে। চাপ সামলাতে আমরা অনলাইনে ইলিশ বেচাও অনেকটা কমিয়ে দিয়েছি।

আধা কেজি ওজনের ইলিশ ৭’শ থেকে ৮’শ টাকা এবং ১ কেজি বা তার একটু বড় সাইজের ইলিশ ১৪’শ থেকে ১৬’শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
তবে ২ কেজি ওজনের চেয়ে বড় ইলিশ ঘাটে নেই।

এ সময় তিনি মা ইলিশ রক্ষা অভিযান সঠিক সময় দেয়া হচ্ছে না জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এ ব্যপারে চাঁদপুর সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ ভট্টাচার্য সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, অনলাইনে ইলিশ বেচাকেনায় মানুষের আগ্রহ বেড়ে যাওয়ায় ঘাটে ইলিশের দাম বেড়ে গেছে।

তাছাড়া মা ইলিশ রক্ষা অভিযান শুরু হওয়া এবং ভারতে ইলিশ পাঠানো কারণে ইলিশের দাম বেশি হতে পারে।

মা ইলিশ রক্ষা অভিযানের তারিখ কেন্দ্রীয়ভাবে মন্ত্রণালয় সকলের সাথে সমন্বয় করেই দেয়া হয়েছে। এটি দেশের ইলিশ সম্পদ রক্ষার বৃহৎ স্বার্থে আমরা বাস্তবায়ন করতে সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছি।

উল্লেখ্য, গত ২৫ সেপ্টেম্বর শার্শা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবুল হাসান জানান, ইলিশ রপ্তানি নিষিদ্ধ হলেও দুর্গাপূজা উপলক্ষে এবার ৪০ টন করে ১১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ৪ হাজার ৬০০ টন ইলিশ ভারতে রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এর মধ্যে ২০ সেপ্টেম্বর ৫২টি প্রতিষ্ঠানকে ২ হাজার ৮০ টন ও ২৩ সেপ্টেম্বর ৬৩টি প্রতিষ্ঠানকে ২ হাজার ৫২০ টন ইলিশ মাছ ভারতে রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়।

এইচএন

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *